• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭
অগ্রণী ব্যাংকের ২৫৮ কোটি টাকা আত্মসাৎ

দুই ব্যবসায়ী ও তিন ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

দুই ব্যবসায়ী ও তিন ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক০৩ এপ্রিল ২০১৯, ০৫:৪২পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

অগ্রণী ব্যাংকের  টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুই ব্যবসায়ী ও তিন ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।  তাদের বিরুদ্ধে ২৫৮ কোটি ৫৬ লাখ ১৬ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

বুধবার চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানায় মামলাটি করেন দুদকের সহকারী পরিচালক নেয়ামুল আহসান গাজী। দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অভিযুক্তরা হলেন, মাররীন ভেজিটেবল অয়েল লিমিটেডের চেয়ারম্যান টিপু সুলতান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক জহির আহমেদ, অগ্রণী ব্যাংকের উপমহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) ও আগ্রাবাদ শাখার সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক বেলায়েত হোসেন, সাবেক সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার রমিজ উদ্দিন এবং সাবেক সিনিয়র অফিসার ত্রিপদ চাকমা।

মামলার এজাহারে বলা হয়, অগ্রণী ব্যাংকের আগ্রাবাদ (জাহান ভবন) থেকে চট্টগ্রামের নূরজাহান গ্রুপের প্রতিষ্ঠান মাররীন ভেজিটেবল অয়েলস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জহির আহমেদ ২০১১ সালের ১০ মার্চ ঋণের আবেদন করেন। আবেদনে মালয়েশিয়া অথবা ইন্দোনেশিয়া থেকে ৩৫ হাজার মেট্রিক টন ‘ক্রুড পামওলিন’ আমদানির জন্য ২০ শতাংশ মার্জিনে ১২০ দিন মেয়াদে প্রায় ৩২৭০ কোটি ৪ লাখ টাকার ঋণপত্র এবং মার্জিন অবশিষ্ট ২৬১ কোটি ৬৩ লাখ টাকার টিআর ঋণ মঞ্জুরের কথা বলা হয়। ব্যাংকের ওই শাখার তৎকালীন সিনিয়র অফিসার ত্রিপদ চাকমা ও সিনিয়র প্রিন্সিপাল অফিসার রমিজ উদ্দিন এ–সংক্রান্ত ঋণ প্রস্তাব তৈরি করেন। ওই ঋণ প্রস্তাব ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ক্রেডিট কমিটির সুপারিশ বা মতামতের আলোকে অনুমোদন দিলে অগ্রণী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে মঞ্জুরিপত্র দেওয়া হয়।

সেই মঞ্জুরিপত্রে মাররীন ভেজিটেবল অয়েলস লিমিটেডের অনুকূলে ২০১১ সালের ১৩ অক্টোবর থেকে ২০১২ সালের ২৩ মার্চ পর্যন্ত আটটি টিআর (ট্রাস্ট রিসিট) ও তিনটি পিএডি (পেমেন্ট অ্যাগেইনস্ট ডকুমেন্ট) ঋণ বাবদ মোট ২৮০ কোটি ৭২ লাখ ৩৮ হাজার ৩৭৩ টাকা বিতরণ করে অগ্রণী ব্যাংক। ঋণপত্রের বিপরীতে সংশ্লিষ্ট শাখায় মোট ১১টি আমদানি দলিল গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে ঋণগ্রহীতা প্রতিষ্ঠান আটটি আমদানি দলিলের প্রয়োজনীয় মার্জিন ব্যাংকের শাখায় জমা করে মূল দলিল দিয়ে আমদানি করা মালামাল খালাস করে। কিন্তু তিনটি আমদানি বিলের মূল দলিল ব্যাংকের শাখায় সংরক্ষিত থাকা অবস্থায় প্রতারণার মাধ্যমে জাল কাগজপত্র ব্যবহার করে ৯৮ কোটি ২৭ লাখ টাকার মালামাল চট্টগ্রাম কাস্টমস থেকে ছাড় করে। ঋণগ্রহীতা প্রতিষ্ঠান মার্জিন ও অন্যান্য খাতে মোট ২২ কোটি ১৬ লাখ ২২ হাজার টাকা জমা দেয়। বাকি ২৫৮ কোটি ৫৬ লাখ ১৬ হাজার ৩৭৩ টাকা আত্মসাৎ করে।

রেকর্ডপত্র পর্যালোচনা করে দুদক বলছে, নূরজাহান গ্রুপের প্রতিষ্ঠান মাররীন ও জাসমীর ভেজিটেবল অয়েলসের কাছে অগ্রণী ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায় ২০১১ সালের ১ মে পর্যন্ত ২৩৩ কোটি ৫১ লাখ টাকার মেয়াদোত্তীর্ণ ঋণ অনাদায়ি ছিল। নতুন ঋণ অনুমোদনের মঞ্জুরিপত্রের ১ নম্বর শর্তে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান ও এর সহযোগী প্রতিষ্ঠানের কাছে ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায় টিআর ঋণের মেয়াদোত্তীর্ণ দায় পরিশোধ সাপেক্ষে ঋণসুবিধা কার্যকর করার শর্ত ছিল। কিন্তু তা প্রতিপালন না করেই ২৮০ কোটি ৭২ লাখ ৩৮ হাজার ৩৭৩ টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়।

এ ছাড়া ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক লেনদেনের গাইডলাইনে সহায়ক জামানত হিসেবে সহজেই নগদায়নযোগ্য তরল সম্পদ অথবা কেবল শহর এলাকায় অবস্থিত স্থাবর সম্পত্তি (ক্রেডিট সুবিধার পরিমাণের দ্বিগুণ মূল্যের সম্পত্তি) জামানত রাখার নির্দেশনা থাকলেও তা অনুসরণ করা হয়নি। জামানত হিসেবে শুধু টিআরের সমপরিমাণ চেক (অগ্রিম তারিখ সংবলিত) গ্রহণ করেই ওই ঋণ দেওয়া হয়। কিন্তু গ্রাহকের ব্যাংক হিসাবে প্রয়োজনীয় টাকা না থাকায় চেক নগদায়ন করে ঋণের টাকা আদায় করা সম্ভব হয়নি।

এজাহারে বলা হয়েছে, ঋণের বিপরীতে ব্যাংকের কাছে কোনো সহায়ক জামানত না থাকা এবং ওই ঋণের টাকা আদায় করতে না পারায় সরকারের বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি হয়েছে। এ ক্ষেত্রে ব্যাংকের কর্মকর্তারা পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজে অথবা অন্যকে আর্থিকভাবে লাভবান করার অসৎ উদ্দেশ্যে কাজ করেছেন। প্রয়োজনীয় বিধি-বিধান অনুসরণ না করেই মাররীন ভেজিটেবল অয়েলস লিমিটেডের অনুকূলে ঋণ বিতরণ এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ঋণের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করতে যথাযথভাবে দায়িত্ব (আমদানি করা মালামালের ওপর নিবিড় তদারকি, স্টক পরিদর্শন) পালন করেননি। এ কারণে ঋণগ্রহীতা প্রতিষ্ঠান ওই টাকা পরিশোধ না করে প্রতারণা, জালিয়াতি ও মানিলন্ডারিংয়ের মাধ্যমে ২৫৮ কোটি ৫৬ লাখ ১৬ হাজার ৩৭৩ টাকা আত্মসাৎ করে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

 

 

টাইমস/এসআই

মাস্ক ব্যবহার না করলেই কঠোর ব্যবস্থা

মাস্ক ব্যবহার না করলেই কঠোর ব্যবস্থা

দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবার মাস্ক ব্যবহার

দিনের তাপমাত্রা বাড়লেও উত্তরাঞ্চলে তীব্র শীত

দিনের তাপমাত্রা বাড়লেও উত্তরাঞ্চলে তীব্র শীত

মেঘ কেটে যাওয়ার পর রোববার সন্ধ্যার পর থেকে দেশের বিভিন্ন

অটো প্রমোশনেও পাল্টাবে না প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের রোল নম্বর

অটো প্রমোশনেও পাল্টাবে না প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের রোল নম্বর

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে এবছর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা ছাড়াই পরবর্তী

জাতীয়

‘বেগমপাড়ায়’ বাড়ির মালিক সরকারি কর্মকর্তাদের খুঁজছে দুদক

‘বেগমপাড়ায়’ বাড়ির মালিক সরকারি কর্মকর্তাদের খুঁজছে দুদক

কানাডার আলোচিত ‘বেগমপাড়ায়’ যেসব সরকারি কর্মকর্তাদের বাড়ি রয়েছে, তাদের তালিকা চেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সরকারের কাছে এ তালিকা চেয়েছে সংস্থাটি।

আন্তর্জাতিক

আফগান যুদ্ধে নিহত বা বিকলাঙ্গ হয়েছে ২৬ হাজার শিশু

আফগান যুদ্ধে নিহত বা বিকলাঙ্গ হয়েছে ২৬ হাজার শিশু

আফগান যুদ্ধে ২০০৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত প্রায় ২৬ হাজার শিশু নিহত কিংবা বিকলাঙ্গ হয়েছে। এই ১৪ বছরে প্রতিদিন গড়ে ৫ জন শিশু আহত বা নিহত হয়েছে। সেভ দ্যা চিলড্রেনের এক সমীক্ষায় এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

জাতীয়

ফজরের নামাজ পড়ার সময় শ্বাসকষ্টে ইমামের মৃত্যু

ফজরের নামাজ পড়ার সময় শ্বাসকষ্টে ইমামের মৃত্যু

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সোমবার ফজর নামাজ পড়া অবস্থায় শ্বাসকষ্টে ইমাম হাফেজ মাওলানা সুলায়মানের মৃত্যু হয়েছে। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। সদর উপজেলা শহরের পৌর এলাকার কুমারশীলমোড়স্থ ঐতিহ্যবাহী মদিনা মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

রাজনীতি

পৌরসভা নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি মঙ্গলবার

পৌরসভা নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি মঙ্গলবার

আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিতরণ আগামী মঙ্গলবার থেকে শুরু করবে আওয়ামী লীগ। চলবে শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) পর্যন্ত। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে মনোনয়ন ফরম বিতরণ করা হবে।

আন্তর্জাতিক

সৌদি যুবরাজের সঙ্গে নেতানিয়াহুর গোপন বৈঠক

সৌদি যুবরাজের সঙ্গে নেতানিয়াহুর গোপন বৈঠক

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে গোপনে সাক্ষাৎ করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু। রোববার তাদের এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। তবে আগে থেকেই সৌদিতে অবস্থান করছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

বিনোদন

গর্ভকালীন হাঁটাচলার জন্য ১০ লাখের চটি পরলেন কারিনা

গর্ভকালীন হাঁটাচলার জন্য ১০ লাখের চটি পরলেন কারিনা

ফ্যাশনের ব্যাপারে বরাবরই সচেতন কারিনা কাপুর খান। বলিউডে আসার পর থেকেই কারিনা প্রমাণ দিয়েছেন, তিনি শুধুমাত্র সিনেমার হিরোইন নন, বরং বলিউড ডিভা ৷ একসময় বলিউডের বহু নায়কের সঙ্গে সম্পর্কে গিয়েছিলেন কারিনা কাপুর । কিন্তু সেই গুঞ্জনকে উড়িয়ে বিয়ে করে বসেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা সাইফ আলী খানকে।