• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৭ ফাল্গুন ১৪২৬

স্বাস্থ্য

যে উপায়ে মেথি খেলে বেশি উপকার মেলে

যে উপায়ে মেথি খেলে বেশি উপকার মেলে

মেথি আমাদের সমাজে অতিপরিচিত একটি রন্ধন সামগ্রী। রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বাড়ানোর পাশাপাশি নানা ওষধিগুণের জন্য এটি পরিচিত। মেথির বীজ পাঁচনজনিত অসুস্থতা দূর করতে এবং হাড় মজবুত করতে সহায়তা করে। ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল ফর ভিটামিন অ্যান্ড নিউট্রিশন রিসার্চ-এ প্রকাশিত ২০১৫ সালের সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, দৈনিক গরম পানিতে ভিজানো মেথি বীজের ১০ গ্রাম ডোজ টাইপ-২ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করতে পারে। এতে উল্লেখ

কৃত্রিম মিষ্টি বা ‘সুগার ফ্রি’ খাদ্য-পানীয় কতটা নিরাপদ?

কৃত্রিম মিষ্টি বা ‘সুগার ফ্রি’ খাদ্য-পানীয় কতটা নিরাপদ?

ডায়াবেটিস কিংবা ওজন বৃদ্ধিসহ নানা কারণে আমাদের অনেকের চিনি এড়িয়ে চলতে হয়। বাজারে চিনির বিকল্প হিসেবে বেশ কিছু কৃত্রিম মিষ্টকারক রয়েছে, তাছাড়াও আছে নানান ‘সুগার ফ্রি পণ্য’। বলা হয়ে থাকে, শিশু থেকে শুরু করে প্রাপ্তবয়স্ক লোকদের মধ্যে ওজন বৃদ্ধির হার বেড়ে যাওয়ার কারণে উনিশ শতকে কৃত্রিম মিষ্টকারক উদ্ভব ঘটেছিল।

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই খেলে দূর হবে পেটের ব্যথাসহ নানা সমস্যা

দই আমাদের অতিপরিচিত ও প্রিয় একটি খাবার। আমাদের মধ্যে বেশিরভাগ লোকই দই খেতে পছন্দ করেন। এটি যে কেবল স্বাদেই অসাধারণ তা কিন্তু নয়, হজমে সহায়তা করাসহ ত্বককে সুস্থ রাখতে দইয়ের ভূমিকাও অতুলনীয়। মশলাদার খাবারের পর দই খাওয়ার রীতি আমাদের সমাজে এখনো অনেক জায়গায় প্রচলিত রয়েছে। এটি কিন্তু এমনি এমনি সৃষ্টি কোনো রীতি নয়, বরং এর পেছনে রয়েছে বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা।

হলুদ মিশ্রিত দুধের উপকারিতা

হলুদ মিশ্রিত দুধের উপকারিতা

হলুদ আর দুধের স্বাস্থ্য উপকারিতাগুলি অজানা নয়, এটি রক্ত পরিষ্কার করা থেকে শুরু করে দেহে ইনসুলিনের কার্যকারিতা উন্নত করে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী, নিয়মিত ঘুমানোর আগে এক গ্লাস হলুদ মিশ্রিত দুধ পান করতে পারেন। এক্ষেত্রে স্থানীয়ভাবে উৎপন্ন দুধ পান করতে পারলে ভালো। তবে চাইলে প্যাকেটজাত দুধও পান করা যেতে পারে। আর প্যাকেটজাত হলদি গুঁড়ার চেয়ে স্থানীয়ভাবে উৎপন্ন কাচা হলুদ ব্যবহার করা উত্তম।

ডায়াবেটিস রোগীদের কি কফি খাওয়া উচিৎ?

ডায়াবেটিস রোগীদের কি কফি খাওয়া উচিৎ?

ডায়াবেটিস আক্রান্ত ব্যক্তিকে কী খাওয়া উচিত এবং কী এড়ানো উচিত এ বিষয়ে অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে। ডায়াবেটিস রোগীদের খাদ্য তালিকায় এমন সব খাবার অন্তর্ভুক্ত করা উচিত, যা রক্তে সুগারের মাত্রা স্বাভাবিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে। এমন বেশ কয়েকটি খাবার রয়েছে, যা আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে এবং তা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে সমস্যা তৈরি করবে।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত ঘুম অপরিহার্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত ঘুম অপরিহার্য

সুস্বাস্থ্যের জন্য ঘুম অপরিহার্য। আর অপর্যাপ্ত ঘুম বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ। কিন্তু আপনি কি জানেন যে, অপর্যাপ্ত ঘুম আপনার দেহের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ ও বিপাকীয়করণের ক্ষমতাকেও প্রভাবিত করতে পারে? সাধারণত যারা রাতে ঠিকমতো ঘুমায় না তাদের বেশিরভাগের রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়।