• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭
ইতিহাসের পাতায় পাতায় চিকিৎসকদের অবদান

ইতিহাসের পাতায় পাতায় চিকিৎসকদের অবদান

মোঘল সাম্রাজ্যের সম্রাট শাহজাহানের প্রিয়তমা মমতাজ বেগমের গর্ভে জন্ম নেয়া জাহানারা ছিল পিতার ভীষণ প্রিয়। সুন্দরী বিদুষী কন্যা পিতাকে রাজ্য পরিচালনায় সাহায্য করতেন। তার গুণে-বুদ্ধিমত্তায় মুগ্ধ পিতা তার উপাধি দিয়েছিলেন মালিকা-ই-হিন্দুস্তান পাদিশাহ বেগম, রাজ্যের বিষয় আশয়ে কন্যার ছিল ব্যাপক প্রভাব। এ যুগের মেলানিয়া ট্রাম্প হয়তোবা বলা যেতে পারে।

বিস্তারিত
“প্রত্যেক জায়গায় ধর্ম খোঁজা ঠিক না”

“প্রত্যেক জায়গায় ধর্ম খোঁজা ঠিক না”

"প্রত্যেক জায়গায় ধর্ম খোঁজা ঠিক না" কথাটা তারাই বলে যাদের ধর্ম সম্পর্কে জ্ঞান নাই অথবা কম। ধর্ম খুঁজেছে বলেই, বুঝেছে বলেই ৯০ ভাগ মুসলিম বিদ্যানন্দে শ্রম দিচ্ছে, ধর্মের মাঝে এক অন্তর্নিহিত সুখ পান বলেই হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সবাই এই বিদ্যানন্দে সম্পৃক্ত হোন।

বিস্তারিত
ইরানের মিলিটারি স্যাটেলাইট ও মাল্টিপোলার বিশ্বব্যবস্থা

ইরানের মিলিটারি স্যাটেলাইট ও মাল্টিপোলার বিশ্বব্যবস্থা

পরাশক্তিগুলো মহাকাশে মিলিটারি স্যাটেলাইট হয়ত হরহামেশাই পাঠাচ্ছে, কিন্তু এটা আর এমন কি এমনটাই হয়তো ভাবেন সামরিক বিশ্লেষকরা। পৃথিবীতে আর্থিকভাবে অবরুদ্ধ থাকা ইরানিরা গেল ২২ এপ্রিল মহাকাশে মিলিটারি স্যাটেলাইট পাঠিয়ে বিশ্বমোড়লদের চোখ তুলেছে কপালে।

বিস্তারিত
করোনায় মধ্যবিত্ত নামছে নিম্নবিত্তের কাতারে

করোনায় মধ্যবিত্ত নামছে নিম্নবিত্তের কাতারে

নব্বইয়ের পর থেকে গত দুই দশকে দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়নের কারণে একদিকে যেমন দরিদ্রতার হার কমেছে, এর পাশাপাশি বেড়েছে মধ্যবিত্তের সংখ্যাও। এ সময়ে ধারাবাহিকভাবে মধ্যবিত্ত শ্রেণি বেড়েছে চোখে পড়ার মতো। বর্তমানে মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে দেশের মানুষ। এই লকডাউনে মধ্যবিত্তের হাতে থাকা সঞ্চয় কারও শেষ, আবার কারও ভেঙে শেষের পথে।

বিস্তারিত
করোনা পৃথিবী ধ্বংসের প্রাথমিক ধাক্কা

করোনা পৃথিবী ধ্বংসের প্রাথমিক ধাক্কা

২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) বিশ্বের প্রায় ১৮৫টি দেশের কয়েক কোটি তরুণ-তরুণী রাজপথ দখল করে সভা-সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেছে। তাদের দাবি ছিল, ‘পৃথিবীকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচাও। পৃথিবী থেকে মানুষের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হতে দেব না। জরুরি ব্যবস্থা নিতে হবে।’ বর্তমানে বিশ্বব্যাপী মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে। অতি রহস্যময় ভাইরাসের চূড়ান্ত গতিপ্রকৃতি নিরূপণে হিমশিম খাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

বিস্তারিত
করোনা বনাম লে-অফ

করোনা বনাম লে-অফ

বর্তমান বাংলাদেশে শিল্প কল-কারখানায় কোভিড-১৯ তথা করোনা ভাইরাস যতটা না আলোচিত, তার চাইতেও অধিকতর স্থান দখল করে নিয়েছে ‘লে-অফ’ নামক শব্দটি। বাংলাদেশ লেবার ল এর ২০০৬-ধারা ১৬ মোতাবেক বর্তমানে আমরা ‘লে-অফ’ নামক বিষয়টা নিয়ে খুবই সোচ্চার। লেবার ল ধারা ২ এর সংজ্ঞাসূমহের ৫৮ উপ ধারা অনুযায়ী: ‘লে-অফ’ অর্থ কয়লা, শক্তি ও কাঁচামালের স্বল্পতা অথবা মাল জমিয়া থাকা অথবা যন্ত্রপাতি বা কলকজ্বা বিকল বা ভাঙ্গিয়া যাওয়ার কারণে কোনো শ্রমিককে কাজ দিতে মালিকের ব্যর্থতা, অস্বীকৃতি বা অক্ষমতা।

বিস্তারিত
আমরা কি থামতে জানি ?

আমরা কি থামতে জানি ?

আমরা ছুটছিলাম। অশ্বমেধের ঘোড়ার মতো। ঘৃণা নিয়ে, বিদ্বেষ নিয়ে, অনুভূতির ছেলেখেলা নিয়ে, উপরে ওঠার প্রবল তাড়া নিয়ে ঠুলি-আঁটা চোখে আমরা ভীষণ গতিতে এগিয়ে যেতে মগ্ন থেকেছি। প্রত্যেকে নিজের নিজের কোটরে গলা ডুবিয়েছিলাম, যাতে আত্মবিশ্লেষণের জন্য একচিলতে জায়গাও ফাঁকা না থাকে। করোনাভাইরাস সেই দুর্বার গতিকে রুদ্ধ করল। আমরা কী জানতাম না এমন কিছু হতে পারে? আসলে আমরা বরাবর আশঙ্কিত হয়ে রয়েছি। আমরা জানি, কোনো তীব্র সংকট যখন-তখন তার আগ্রাসন দিয়ে আমাদের ‘অর্জিত’ গতিকে থামিয়ে দিতে পারে।

বিস্তারিত
ভেবে দেখুন সাংবাদিকহীন পৃথিবীটা কেমন হবে

ভেবে দেখুন সাংবাদিকহীন পৃথিবীটা কেমন হবে

করোনাভাইরাসের কারণে মারা যাওয়া ব্রিটিশ নাগরিকের সংখ্যা, ১৯৪৫ সালের পর থেকে সৃষ্ট সব দ্বন্দ্ব-সংঘাতের ফলে নিহতের থেকেও বেশি । তবে, এর (করোনাভাইরাসের) কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে। তা হলো- বিনামূল্যে বিশ্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার গুরুত্ব প্রমাণিত হয়েছে। এটি বিজ্ঞান, ওষুধ ও জেনোম-ম্যাপিং কতটা মূল্যবান তা প্রমাণ করেছে। এছাড়াও এটি আমাদেরকে দেখিয়েছে, সাংবাদিকতা না থাকলে আমাদের মধ্যে আরও অনেক লোককে প্রাণ হারাতে হতো।

বিস্তারিত
করোনা কি বিশ্বজুড়ে শ্রমিক শ্রেণীকে বিদ্রোহী করে তুলবে?

করোনা কি বিশ্বজুড়ে শ্রমিক শ্রেণীকে বিদ্রোহী করে তুলবে?

করোনাভাইরাসের মহামারী ছড়িয়ে পড়ার ফলে ইতিমধ্যে গৃহবন্দী হয়ে পড়েছেন বিশ্বের মোট জনসংখ্যার প্রায় দুই পঞ্চমাংশ, বুধবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে আট লাখ। এই পরিস্থিতিতে সব থেকে বেশি ঝুঁকিতে আমাদের অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি; বিশ্বের আপামর শ্রমিক শ্রেণী, খেটে খাওয়া দিনমজুর আর স্বল্প আয়ের লোকজন। দেশে দেশে কল কারখানাগুলি বন্ধ হয়ে পড়ছে, খেটে খাওয়া মানুষের আয়ের পথ রুদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। রাষ্ট্র কর্তৃক ঘোষিত গৃহবন্দীর ফলে ঘরে আটকে থাকতে হচ্ছে দিন এনে দিন খাওয়া এসব লোকের।

বিস্তারিত
তেভাগা আন্দোলনের আলোয় গ্রাম ও শহরের বিস্মৃতির দুই ধারা

তেভাগা আন্দোলনের আলোয় গ্রাম ও শহরের বিস্মৃতির দুই ধারা

একটি আখ্যান গড়ে ওঠার সময়ে পারিপার্শ্বিকের অনেকটা প্রভাব থাকে। আখ্যানের ইতিহাস আরম্ভ হয় সেই প্রভাব ও উদ্দীপনার পর্যায় থেকে। বিশেষ করে ভারতীয় সাহিত্যের ক্ষেত্রে, প্রথাগতভাবে সাল-তারিখের গণনার থেকে কোন পরিপার্শ্ব সাহিত্যটির অস্তিত্বকে অনিবার্য করে তুলছে, সেই আলোচনা বেশী প্রাসঙ্গিক। অবিভক্ত বাংলার তেভাগা আন্দোলন সেরকমই একটি ঐতিহাসিক উদ্দীপনার নাম, যা বাংলা সাহিত্যে কৃষি-পরম্পরার কথা তুলে ধরতে বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে। অবিভক্ত বাংলার তেভাগা আন্দোলন (১৯৪৬-১৯৪৯) ভৌগোলিকভাবে গ্রামকেন্দ্রিক।

বিস্তারিত