• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬
খুলনার কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার ইনস্টিটিউট

খুলনার কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার ইনস্টিটিউট

‘যে জন দিবসে মনের হরষে জ্বালায় মোমের বাতি’ কিংবা ‘চিরসুখী জন ভ্রমে কি কখন ব্যথিত বেদন বুঝিতে পারে’ কিংবা ‌আশু গৃহে তার দেখিবে না আর নিশীথে প্রদীপ ভাতি'। বিখ্যাত এই চরণদ্বয়ের রচিয়তা কবি, সাংবাদিক ও শিক্ষক কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার। বিভিন্ন কবি ও সাহিত্যিক তাদের লেখনীর মাধ্যমে বাংলা সাহিত্য ভাণ্ডারকে করছেন সমৃদ্ধ। যার কারণে আমরা পেয়েছি একটা বৃহৎ সাহিত্যভাণ্ডার। কবি কৃষ্ণচন্দ্র মজুমদার ছিলেন এমনই একজন কবি যিনি বাংলার সাহিত্য ভাণ্ডারকে তার লেখনীর মাধ্যমে সমৃদ্ধ করেছেন।

বিস্তারিত
নয়নাভিরাম গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত

নয়নাভিরাম গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত

মনভরে প্রকৃতি উপভোগের এক অনন্য স্থান গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত। প্রকৃতি যেনো এখানে দুহাত ভরে উজাড় করে দিয়েছে সব। একপাশে দিগন্তবিস্তৃত সাগরের জলরাশি, আরেকপাশে কেওড়ার বন। বনের মাঝ দিয়ে বয়ে চলেছে ছোট্ট একটা খাল। খালের পাশে এদিক ওদিক চারিদিকে ছড়িয়ে আছে কেওড়ার শ্বাসমূল। সব মিলিয়ে একটা ম্যানগ্রোভ ম্যানগ্রোভ ভাব, কোথাও আবার সেই ম্যানগ্রোভ চলে গিয়েছে সমুদ্রের অনেকটা ভেতরে। 

বিস্তারিত
প্রকৃতি কন্যা জাফলং

প্রকৃতি কন্যা জাফলং

বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্তবর্তী খাসিয়া-জৈন্তা পাহাড়ের পাদদেশে সবুজ বন ও বাগানের সৌন্দর্য ঘেরা একটি পাহাড়ি অঞ্চলের নাম জাফলং। এখানে পাহাড় আর নদীর অপূর্ব সম্মিলন বলে এই এলাকা বাংলাদেশের অন্যতম একটি পর্যটনস্থল হিসেবে পরিচিত। সিলেট নগরী থেকে ৬২ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকে গোয়াইনঘাট উপজেলায় অবস্থিত জাফলং।

বিস্তারিত
ঘুরে আসুন ‌‘মিনি বাংলাদেশ’

ঘুরে আসুন ‌‘মিনি বাংলাদেশ’

আপনি যদি বাংলাদেশের সকল স্থাপনা একসাথে একটি পার্কে দেখতে চান তবে অবশ্যই চলে যেতে হবে চট্টগ্রামের কালুরঘাটে অবস্থিত মিনি বাংলাদেশে (স্বাধীনতা কমপ্লেক্স)। কি নেই এখানে? বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলোর মিনি ভার্সন নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে মিনি বাংলাদেশ। সংসদ ভবন থেকে শুরু করে কান্তজীর মন্দির, আহসান মঞ্জিল, সুপ্রিম কোর্ট, ষাটগুম্বজ মসজিদ ইত্যাদি। মিনি বাংলাদেশে বিভিন্ন স্থাপনার পাশাপাশি রয়েছে চট্টগ্রামের সংস্কৃতির নান্দনিক উপস্থাপনা। একই স্থানে সারা বাংলাদেশের বিভিন্ন ঐতিহাসিক স্থাপনার স্বপ্নপুরী এই মিনি বাংলাদেশ।

বিস্তারিত
কারুকার্যমণ্ডিত জমিদার লক্ষণ সাহার বাড়ি

কারুকার্যমণ্ডিত জমিদার লক্ষণ সাহার বাড়ি

জমিদার লক্ষণ সাহার বাড়ি। চারদিকে সবুজ বেষ্টনীর মাঝে এক টুকরো স্বর্ণ মহলই বলা চলে। কাছ থেকে এই বাড়ির কারুকাজ দেখলে যে কেউ বিস্মিত হন। এই মোহনীয় সৌন্দর্য দেখলেই বুঝা যায় সেই সময়ের জমিদাররা কতটা বিলাসী আর আরাম প্রিয় ছিলেন। নিপুণ কারুকার্যমণ্ডিত জমিদার লক্ষণ সাহার বাড়িটি শত বছর পরও ঐতিহ্যপ্রেমী ও ভ্রমণপিপাসু পর্যটককে মুগ্ধ করে।

বিস্তারিত
দৃষ্টিনন্দন সুন্দরবনের হিরণ পয়েন্ট   

দৃষ্টিনন্দন সুন্দরবনের হিরণ পয়েন্ট  

সুজলা-সুফলা শস্য শ্যামলা আমাদের এই বাংলাদেশ। এই দেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নজর কাড়ে সবার। এদেশে রয়েছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত বিভিন্ন মনোমুগ্ধকর স্থান। সুন্দরবনের হিরণ পয়েন্ট তার মধ্যে অন্যতম। হিরণ পয়েন্ট সুন্দরবনের দক্ষিণাংশের একটি সংরক্ষিত অভয়ারণ্য। এর আরেক নাম নীল কমল। প্রমত্তা কুঙ্গা নদীর পশ্চিম তীরে খুলনা রেঞ্জে এর অবস্থান। হিরণ পয়েন্ট ইউনেস্কো ঘোষিত অন্যতম একটি বিশ্ব ঐতিহ্য।

বিস্তারিত
বসন্তে অপরূপা আনাতোলিয়ার আকদামা দ্বীপ 

বসন্তে অপরূপা আনাতোলিয়ার আকদামা দ্বীপ 

প্রাচীন স্থাপত্য আর প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরূপ মিশেল ইউরোপের মুসলিম প্রধান দেশ তুরস্ক। অটোমান সাম্রাজ্যের হাতে বিকশিত এ দেশটির অসংখ্য দৃষ্টিনন্দন স্থানের মধ্যে আকদামা দ্বীপটি সত্যিই মনোহর। পূর্ব আনাতোলিয়ার এ দ্বীপের আকর্ষণে প্রতি বসন্তে সেখানে ছুটে যান হাজারো বিদেশি পর্যটক। তবে তাদের সবাই যে কেবল লেকের প্রেমে পড়েই সেখানে ছুটে যান তা নয়। মূলত এ দ্বীপের মূল আকর্ষণ আকদামা চার্চ। প্রাচীন অনন্য স্থাপনার এ চার্চটি এতোটাই দৃষ্টিনন্দন যে তুরস্ক ভ্রমণকারী কোনো পর্যটকই এটিকে মিস করতে চান না। বিশেষ করে আনাতোলিয়া যারা যান তারা। 

বিস্তারিত
সৌন্দর্যের লীলাভূমি লোভাছড়া

সৌন্দর্যের লীলাভূমি লোভাছড়া

চারদিকে সবুজ বেষ্টিত চা-বাগান, সারি সারি গাছ, পাহাড়, মেঘ আর বালুসমৃদ্ধ স্বচ্ছ নদীর পানির সঙ্গে নীল আকাশের মিতালি। স্রোতের ছলাৎ ছলাৎ শব্দ। স্বচ্ছ নীলাকাশে সাদা বক আর বিভিন্ন পাখির ওড়া-উড়ি। বড় বড় সবুজ পাহাড় ছুঁয়ে নেমেছে ঝর্ণা। অনেকটা লোকচক্ষুর আড়ালে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের অনন্য রূপ হচ্ছে লোভাছড়া।

বিস্তারিত
জল-পাথরের ভোলাগঞ্জ

জল-পাথরের ভোলাগঞ্জ

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক অপূর্ব লীলাভূমি সিলেট। অসংখ্য সুন্দর ও মনোরম জায়গা রয়েছে সিলেটে। আর সিলেটের একটি অন্যতম সুন্দর স্থান ভোলাগঞ্জ। সিলেট শহর থেকে ভোলাগঞ্জের দূরত্ব ৩৩ কিলোমিটার। সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত ভোলাগঞ্জে দেশের সর্ববৃহৎ পাথর কোয়ারির অবস্থান। মেঘালয় রাজ্যের খাসিয়া জৈন্তিয়া পাহাড় থেকে বর্ষাকালে ঢল নামে। ধলাই নদীতে ঢলের সাথে নেমে আসে পাথর। পরবর্তী বর্ষার আগমন পর্যন্ত চলে পাথর আহরণ।

বিস্তারিত
সুন্দরবনের করমজল পর্যটন কেন্দ্র

সুন্দরবনের করমজল পর্যটন কেন্দ্র

সুন্দরবন পূর্ব বনবিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের অধীন করমজল পর্যটন কেন্দ্রটি ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে একটি আকর্ষণীয় স্থান। এই পর্যটন কেন্দ্রটি সুন্দরবনের পশুর নদীর তীরে অবস্থিত। বনবিভাগের তত্ত্বাবধানে মংলা সমুদ্র বন্দর থেকে প্রায় আট কিলোমিটার দূরে ৩০ হেক্টর জমির উপর এই পর্যটন কেন্দ্রটি গড়ে তোলা হয়েছে।

বিস্তারিত