• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬

জেমস মনরো: দক্ষ কূটনীতিক থেকে দক্ষ প্রেসিডেন্ট

জেমস মনরো: দক্ষ কূটনীতিক থেকে দক্ষ প্রেসিডেন্ট

ফিচার ডেস্ক০৮ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:০১এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

জেমস মনরো। ছিলেন উনিশ শতকের প্রথমার্ধের আমেরিকার একজন সফল কূটনীতিক। যিনি পরবর্তীতে দুই মেয়াদে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন। তার গৃহীত পররাষ্ট্রনীতি ‘মনরো ডকট্রিন’ নামে পরিচিত, যা মার্কিন পররাষ্ট্রনীতির বিবর্তনের মাইলফলক।

মনরো ১৭৫৮ সালের ২৮ এপ্রিল ওয়েস্টমোরল্যান্ড কাউন্টিতে জন্মগ্রহণ করেন। আমেরিকান বিপ্লবের প্রথম কয়েক বছর তিনি সেনাবাহিনীতে কাজ করেন। পরবর্তীতে ভার্জিনিয়ার রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন এবং প্রেসিডেন্ট জেফারসনের পৃষ্ঠপোষকতায় জাতীয় রাজনীতির একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা হিসেবে আবির্ভূত হন। ১৭৮৬ সালে তিনি এলিজাবেথ কর্টরাইটকে বিয়ে করেন।

ভার্জিনিয়ার সিনেটর হিসেবে জেমস মনরো কেন্দ্রীকরন নীতির বিরোধিতা করেন এবং হ্যামিল্টনের সংস্কার নীতির কঠোর সমালোচক ছিলেন। তিনি ১৭৯৪ সালে ফ্রান্সে রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত হন। ১৭৯৬ সালে তার সংগ্রামময় কূটনৈতিক জীবনের অবসান ঘটে। পরে ১৭৯৯-১৮০২ পর্যন্ত তিনি ভার্জিনিয়ার গভর্নরের দায়িত্ব পালন করেন।

১৮০৩ সালে প্রেসিডেন্ট জেফারসন লুইসিয়ানা অঙ্গরাজ্য ক্রয় করতে আলোচনার জন্য তাকে নিযুক্ত করেন। ১৮০৮ সালে তিনি মেডিসনের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীতার বিরোধিতা করে ব্যর্থ হন। যদিও পরবর্তীতে প্রেসিডেন্ট মেডিসনের আহবানেই তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। ১৮১৬ সালে তিনি ফেডারেলিস্ট রউফাস কিংকে পরাজিত করে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। পরে ১৮২০ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।

তিনি মেডিসন কর্তৃক গৃহীত হ্যামিল্টনিয়ান অর্থনৈতিক সংস্কারনীতি অব্যাহত রাখেন। তাঁর প্রশাসনকে তিনি ‘উত্তম অনুভূতির যুগ’ হিসেবে অভিহিত করেন। ১৮২৩ সালে তিনি ‘মনরো ডকট্রিন’ পররাষ্ট্রনীতির প্রণয়ন করেন, যাতে বলা হয় আমেরিকা যেকোন ধরণের ঔপনিবেশিক হস্তক্ষেপ প্রতিহত করবে এবং অন্যরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পূর্ব পর্যন্ত মনরো ডকট্রিন ছিলো আমেরিকার অন্যতম পররাষ্ট্রনীতি।

১৮৩১ সালের ৪ঠা জুলাই তৃতীয় প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমেরিকার স্বাধীনতা দিবসে মারা যান এ মহান নেতা। 

 

টাইমস/এএইচ/জিএস

সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে না ঢাবি

সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেবে না ঢাবি

বুয়েটের পর এবার ইউজিসির প্রস্তাবিত সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ না

যেসব কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সালমান শাহ

যেসব কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সালমান শাহ

জনপ্রিয় নায়ক সালমান শাহ’র আত্মহত্যার পাঁচ কারণ জানালেন পুলিশ ব্যুরো

পাপিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদেরও বিচার করা হবে : কাদের

পাপিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টদেরও বিচার করা হবে : কাদের

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পাপিয়ার অপরাধের জন্য

জাতীয়

অপরাধের দায় নেবে না দল: ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া

অপরাধের দায় নেবে না দল: ১৫ দিনের রিমান্ডে পাপিয়া

অস্ত্র ও মাদক আইনের মামলায় গ্রেপ্তার নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নুর পাপিয়ার অপরাধ কর্মের দায় তার ব্যক্তিগত। পাপিয়ার এসব অপকর্মের দায় কোনো ভাবেই দল নেবে না বলে জানিয়েছেন যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল।

আন্তর্জাতিক

সিএএ বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল দিল্লি: এক পুলিশ নিহত

সিএএ বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল দিল্লি: এক পুলিশ নিহত

ভারতের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজধানী দিল্লি। সোমবার রাজধানীর উত্তর-পূর্ব জাফরাবাদের গোকুলপুরি, মৌজপুর এবং ভজনপুরা এলাকায় সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশের এক কনস্টেবল নিহত হয়েছেন।

বিনোদন

হত্যা নয়, আত্মহত্যা করেছিলেন সালমান শাহ: পিবিআই

হত্যা নয়, আত্মহত্যা করেছিলেন সালমান শাহ: পিবিআই

ঢালিউডের জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহ’র মৃত্যুর ঘটনাটি হত্যা নয়। তিনি আত্মহত্যা করেছিলেন। পারিবারিক কলহের জেরে এই পথ বেছে নিয়েছিলেন সালমান শাহ।

আন্তর্জাতিক

গুঞ্জনের মধ্যেই মাহাথিরের পদত্যাগ

গুঞ্জনের মধ্যেই মাহাথিরের পদত্যাগ

মালয়েশিয়ায় নতুন সরকারি জোট গঠন করা হবে এমন গুঞ্জনের মধ্যেই পদত্যাগ করলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

জাতীয়

রংপুরে মহাসড়কের ওপর পড়ে ছিল যুবকের বিবস্ত্র লাশ   

রংপুরে মহাসড়কের ওপর পড়ে ছিল যুবকের বিবস্ত্র লাশ  

রংপুরে মহাসড়কের ওপর থেকে বিবস্ত্র অবস্থায় অজ্ঞাত এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে নগরীর উত্তম পুরাতন বেতারপাড়া সংলগ্ন রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের ওপর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

স্বাস্থ্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত ঘুম অপরিহার্য

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত ঘুম অপরিহার্য

সুস্বাস্থ্যের জন্য ঘুম অপরিহার্য। আর অপর্যাপ্ত ঘুম বেশ কয়েকটি স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ। কিন্তু আপনি কি জানেন যে, অপর্যাপ্ত ঘুম আপনার দেহের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ ও বিপাকীয়করণের ক্ষমতাকেও প্রভাবিত করতে পারে? সাধারণত যারা রাতে ঠিকমতো ঘুমায় না তাদের বেশিরভাগের রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়।