• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭
বাদামী গাছফড়িং দমন ব্যবস্থাপনা

বাদামী গাছফড়িং দমন ব্যবস্থাপনা

ধানের একটি মারাত্মক ক্ষতিকর পোকা বাদামী গাছ ফড়িং ( Brown Plant Hopper or BPH )। এই পোকা ধান গাছের গোঁড়ায় বসে রস শুষে খায়। ফলে গাছ পুড়ে যাওয়ার রং ধারণ করে মরে যায়। কৃষকের কাছে বাদামী গাছ ফড়িং ‘কারেন্ট পোকা’ বা ‘গুণগুণী’ পোকা নামেও পরিচিত।

বিস্তারিত
ছাদ বাগানে ড্রাগন ফলের চাষ পদ্ধতি

ছাদ বাগানে ড্রাগন ফলের চাষ পদ্ধতি

প্রাচীন রূপকথা জুড়ে আছে ড্রাগন নামক ভয়ংকর শক্তিশালী এক প্রাণীর গল্প। রূপকথার বা কোনো কল্পকাহিনীর ড্রাগন নয়, একটা জলজ্যান্ত ফল। হ্যাঁ এখানে কথা বলা হচ্ছে ড্রাগন ফলের। এটি মূলত আমেরিকার প্রসিদ্ধ একটি ফল, যা বর্তমানে আমাদের দেশেও ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। দেশে সর্বপ্রথম ২০০৭ সালে থাইল্যান্ড, ফ্লোরিডা ও ভিয়েতনাম থেকে এই ফলের বিভিন্ন জাত আনা হয়।

বিস্তারিত
মিষ্টি মরিচ চাষ : এক সম্ভাবনার নাম

মিষ্টি মরিচ চাষ : এক সম্ভাবনার নাম

ক্যাপসিকাম বা মিষ্টি মরিচ সারা বিশ্বেই একটি জনপ্রিয় সবজি। বাংলাদেশেও এর জনপ্রিয়তা দিন দিন বাড়ছে। মিষ্টি মরিচ আমাদের দেশীয় প্রচলিত সবজি না হলেও ইদানীং এর চাষ প্রসারিত হচ্ছে। এই মরিচ অভিজাত হোটেলসহ বিভিন্ন বড় বড় মার্কেটে বিক্রি হয়ে থাকে। এছাড়া মিষ্টি মরিচ বিদেশে রপ্তানির সম্ভাবনাও প্রচুর।

বিস্তারিত
গরু মোটাতাজাকরণে আধুনিক পদ্ধতি

গরু মোটাতাজাকরণে আধুনিক পদ্ধতি

গরু মোটাতাজাকরণ বলতে কিছু সংখ্যক গরু বা বাড়ন্ত বাছুরকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় এবং উন্নত সুষম খাবার সরবরাহ করে ওই গরুর শরীরে অধিক পরিমাণ মাংস/চর্বি বৃদ্ধি করে বাজারজাত করাকেই বুঝায়। দেশের প্রায় ৭০ ভাগ গ্রামীণ পরিবার পশু প্রতিপালনের সঙ্গে জড়িত থাকলেও গরু মোটাতাজাকরণের কলা কৌশল বা প্রযুক্তি ব্যবহারকারী পরিবারের সংখ্যা খুবই কম।

বিস্তারিত
খরগোশ পালনের পদ্ধতি ও পরিচর্যা

খরগোশ পালনের পদ্ধতি ও পরিচর্যা

খরগোশ তৃণভোজী শান্ত ও নিরীহ স্বভাবের প্রাণী। এখনো বাংলাদেশে খরগোশ পালন ব্যাপক আকারে হয়ে ওঠেনি। তবে বাণিজ্যিকভাবে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে খরগোশ পালন অনেক লাভজনক। তাছাড়া অন্য প্রাণীর তুলনায় খরগোশ সহজেই পালন করা যায়। খরগোশের মাংস অত্যন্ত সুস্বাদু। এতে প্রোটিন, শক্তি, মিনারেল ইত্যাদির পরিমাণ বেশি এবং ফ্যাট, সোডিয়াম ও কোলেস্টেরলের পরিমাণ কম।

বিস্তারিত
পাঙ্গাস মাছ চাষের কলাকৌশল

পাঙ্গাস মাছ চাষের কলাকৌশল

আমাদের দেশের পুকুর ও জলাশয় পাঙ্গাস মাছ চাষের ক্ষেত্রে খুবই উপযোগী। ১৯৯০ সালে চাঁদপুরে কৃত্রিম প্রজননে সর্ব প্রথম থাই বা সূচী পাঙ্গাসের উৎপাদন এবং পরবর্তীতে পুকুরে চাষ শুরু হয়। এরপর মৎস্য অধিদপ্তরসহ বেসকারী উদ্যোগের পাঙ্গাস মাছের চাষ পদ্ধতি সারাদেশে ব্যাপক প্রসার লাভ করে। যা দেশের প্রাণীজ চাহিদা পূরণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখে চলছে।

বিস্তারিত
ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ পদ্ধতি

ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ পদ্ধতি

দেশে সাম্প্রতিক সময়ে খাঁচায় মাছ চাষ নতুন আঙ্গিকে শুরু হলেও বিশ্বে এর ইতিহাস অনেক পুরনো। চীনের ইয়াংঝি নদীতে আনুমানিক ৭৫০ বছর আগে এই পদ্ধতিতে মাছ চাষ শুরু হয়। আমাদের দেশে বাণিজ্যিকভাবে খাঁচায় মাছ চাষ শুরু হয় চাঁদপুরে ডাকাতিয়া নদীতে।

বিস্তারিত
ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ছাগল পালন করে স্বাবলম্বী হোন

ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সঙ্গে তালমিলিয়ে দেশে পোলট্রি ও মৎস্য উৎপাদন দ্রুত বাড়লেও প্রযুক্তিগত জ্ঞানের অভাবে প্রাণিসম্পদ বিশেষ করে ছাগলের উৎপাদন আশানুরূপ বাড়েনি। অথচ ছাগল বাংলাদেশে অন্যতম গৃহপালিত পশু। যা অল্প পুঁজিতে বাড়ির আঙিনার পালন করা যায়। ছাগল পালনে গরু-মহিষের মতো উন্নতমানের খাদ্য আবাসন বা অন্যান্য বিশেষ যত্নের প্রয়োজন হয় না।

বিস্তারিত