• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বিপ্লবী ও নাট্যকার শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত

বিপ্লবী ও নাট্যকার শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত

ফিচার ডেস্ক০৮ মে ২০১৯, ১১:০৫এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। ইতিহাস কথা বলে, বলে দেশ, জাতি, বিখ্যাত ব্যক্তিদের কথা। যারা ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছে। তারা হয়ত মরে গেছে। কিন্তু ইতিহাস তাদের স্থান দিয়ে এখনও বাঁচিয়ে রেখেছে। সেই ইতিহাসের অংশ হয়ে মানুষের হৃদয়ে বেঁচে আছে বিপ্লবী শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত।

শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত ছিলেন বাংলাদেশের বিখ্যাত নাট্যকার ও সাংবাদিক। তিনি ১৮৯২ সালে (১২৯৯ বঙ্গাব্দের ৪ শ্রাবণ) খুলনা জেলার সেনহাটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছিলেন একজন ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম ব্যক্তিত্ব। বিপ্লবী সংগঠন স্বদেশী ও অনুশীলন সমিতির অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি।

শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্তের পিতা ছিলেন সত্যচরণ সেন গুপ্ত। শচীন্দ্রনাথের প্রাথমিক জীবন কাটে পিতার কর্মস্থল রংপুরে। সেখানেই তিনি প্রাথমিক শিক্ষা লাভ করেন। সেখানে বিপ্লবী প্রফুল্ল চাকী ছিলেন তার সহপাঠী। ১৯০৫ খ্রিস্টাব্দে স্বদেশী আন্দোলনে যোগ দিয়ে শচীন্দ্রনাথ বিদ্যালয় ত্যাগ করেন এবং অনুশীলন সমিতির সঙ্গে যুক্ত হন। ১৯১১ খ্রিস্টাব্দে কলকাতার জাতীয় বিদ্যালয় থেকে প্রবেশিকা পাস করে তিনি বিএ পর্যন্ত অধ্যয়ন করেন। পরে তিনি কটক মেডিক্যাল স্কুলে চিকিৎসাবিদ্যা ও ময়মনসিংহে কবিরাজি শেখেন। তিনি ছোট থেকেই ছিলেন দেশপ্রেমে জাগ্রত এক কিশোর।

কর্মজীবনের শুরুতে শচীন্দ্রনাথ কিছুদিন একটি কলেজে অধ্যাপনা করেন; পরে সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। তার সাংবাদিক জীবনের শুরু দৈনিক কৃষক ও ভারত পত্রিকায় সহ-সম্পাদক রূপে। এছাড়া তিনি সাপ্তাহিক হিতবাদী, বিজলী ( বারীন্দ্রকুমার ঘোষ প্রতিষ্ঠিত), আত্মশক্তি প্রভৃতি পত্রিকাও সম্পাদনা করেন।

শচীন্দ্রনাথ বিশেষ কৃতিত্ব অর্জন করেন নাটক রচনায়। তার রচিত ঐতিহাসিক ও রাজনৈতিক নাটকের মূল প্রতিপাদ্য দেশাত্মবোধ। তার নাটকে ফুটে উঠেছে অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও হিন্দু-মুসলমানের মিলনের বাণী।

তার উল্লেখযোগ্য ঐতিহাসিক ও রাজনৈতিক নাটকগুলি হলো: গৈরিক পতাকা (১৯৩০), দেশের দাবি (১৯৩৪), রাষ্ট্রবিপ্লব (১৯৪৪), সিরাজুদ্দৌলা (১৯৩৮), ধাত্রীপান্না (১৯৪৮), সবার উপরে মানুষ সত্য (১৯৫৭), আর্তনাদ ও জয়নাদ (১৯৬১)। এছাড়াও রক্তকমল (১৯২৯), ঝড়ের রাতে (১৯৩১), নার্সিংহোম (১৯৩৩), স্বামী-স্ত্রী (১৯৩৭), তটিনীর বিচার (১৯৩৯), মাটির মায়া, কাঁটা ও কমল, প্রলয়, জননী প্রভৃতি তার সামাজিক নাটক। তিনি অনুবাদ গ্রন্থও রচনা করেছিলেন।

বেসরকারি সাংস্কৃতিক দলের নেতা হিসেবে তিনি রাশিয়া, নরওয়ে, পোল্যান্ড, চীন, সিংহল প্রভৃতি দেশ ভ্রমণ করেন। ১৯৬১ সালের ৫ মার্চ শচীন্দ্রনাথ মৃত্যুবরণ করেন।

 

টাইমস/এসআর/এইচইউ

এবার গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ করোনায় আক্রান্ত

এবার গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ করোনায় আক্রান্ত

এবার কারোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি

খুলনায় হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজের ছবি ভাইরাল!

খুলনায় হাঁটুপানিতে দাঁড়িয়ে ঈদের নামাজের ছবি ভাইরাল!

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে খুলনা অঞ্চলে। ভেঙে গেছে

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়াল

দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়াল

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ৭৯তম দিনে মোট মৃতের সংখ্যা ৫০০ ছাড়িয়ে

রাজনীতি

খালেদার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় সন্ধ্যায়

খালেদার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় সন্ধ্যায়

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া সোমবার সন্ধ্যায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। সন্ধ্যা ৭টায় চেয়ারপার্সনের গুলশানের বাসভবন ফিরোজায় আসবেন বিএনপির নেতারা।

জাতীয়

যেসব এলাকায় হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি

যেসব এলাকায় হতে পারে ঝড়-বৃষ্টি

রংপুর, বগুড়া, ময়মনসিংহ, ঢাকা ও সিলেট অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যোতে বলা হয়েছে।

জাতীয়

সিরাজগঞ্জে ঈদের নামাজে সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু

সিরাজগঞ্জে ঈদের নামাজে সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু

ঈদের নামাজ পড়ানোর সময় সিজদারত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন আইউব আলী নামে এক ইমাম। এঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ইমাম আইউব আলী সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার নন্দলালপুর গ্রামের মৃত দেরাজ আলী মুন্সির ছেলে ও নন্দলালপুর আলিম মাদ্রাসার সিনিয়র প্রভাষক ছিলেন।

স্বাস্থ্য

করোনাকালে ঈদে সুস্থ থাকতে প্রয়োজন স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ

করোনাকালে ঈদে সুস্থ থাকতে প্রয়োজন স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ

এক মাস সিয়াম সাধনার পর উদযাপিত হচ্ছে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। ঈদ আনন্দের বড় অনুষঙ্গ হলো খাবারদাবার। এই সময় কিছুটা ভালো-মন্দ খাওয়া হবে, এটাই তো স্বাদের নানা আয়োজনে উদরপূর্তিময়। কিন্তু এ বছর করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে পরিস্থিতি ভিন্ন। এবার ঈদ উদযাপনের চেয়ে শরীর ঠিক রাখার দিকেই নজর দিতে হচ্ছে বেশি। পাশাপাশি মেনে চলতে হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি।

অর্থনীতি

ইঁদুরের আঁকা ছবি বিক্রি করে লাখ টাকা আয়

ইঁদুরের আঁকা ছবি বিক্রি করে লাখ টাকা আয়

গুস নামের ইঁদুরটি সাধারণ কোনো ইঁদুর নয়, বরং সে একজন শিল্পী। একই সঙ্গে বড়লোক ইঁদুর। কারণ, ছবি এঁকে বেশ মোটা অঙ্কের টাকার রোজগার করছে সে। গুস তার ছোট ছোট পাঞ্জা ব্যবহার করে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মাস্টারপিস (ছবি) তৈরি করে, যা এখন পর্যন্ত বিক্রি করে আয় হয়েছে ১,০০০ পাউন্ড বা প্রায় এক লাখ টাকা।

জাতীয়

বাংলাদেশিসহ ৪ নাগরিকের জন্য এয়ার এম্বুলেন্স পাঠাল তুরস্ক!

বাংলাদেশিসহ ৪ নাগরিকের জন্য এয়ার এম্বুলেন্স পাঠাল তুরস্ক!

তুবা আহসান একজন তুর্কি নাগরিক। তিনি বিয়ে করেছিল বাংলাদেশি এক নাগরিককে। কিছুদিন আগে তুবা আহসান এবং তার পরিবারের কয়েক সদস্য