• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬

নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু: ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত পুরুষ

নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু: ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত পুরুষ

ফিচার ডেস্ক১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:০৩এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত পুরুষ। অবিভক্ত বাংলা ও ভারত বর্ষের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম মহানায়ক। সুভাসচন্দ্র বসু ১৮৯৭ সালের ২৩ জানুয়ারি বেঙ্গল প্রদেশের উড়িষ্যার কাটাকে এক কায়স্থ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। মেট্রিক পাশ করার পর ১৯১৩ সালে কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে ভর্তি হন। সেখানে তিনি স্বামী বিবেকানন্দ ও রামকৃষ্ণের লেখা দ্বারা প্রভাবিত হন।

ব্রিটিশ কর্তৃক ভারতীয়দের অবমাননা এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধ এই দু’টি ঘটনা সুভাসচন্দ্র বসুর চিন্তাধারাকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করে। একদিন ভারতবিরোধী মন্তব্যের কারণে প্রফেসর ওয়াতেনকে মারধরের অভিযোগে তাকে কলেজ থেকে বের করে দেয়া হয়। যদিও এ ঘটনায় জড়িত ছিলেন না বলে তার দাবি। এ ঘটনার পর তার মধ্যে চরম জাতীয়তাবাদী মনোভাবের প্রকাশ ঘটে।

১৯১৮ সালে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দর্শন বিষয়ে বিএ পাস করেন। পরে ইন্ডিয়ান সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন। কিন্তু ব্রিটিশ সরকারের অধীনে কাজ করতে চান না। তাই ১৯২১ সালে চাকরী ছেড়ে দেন। এরপর তিনি ‘স্বরাজ’ পত্রিকা প্রকাশ করেন এবং বিপ্লবী চিত্তরঞ্জন দাস ছিলেন তার গুরু। ১৯২৪ সালে তিনি কলকাতা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন।

অন্যান্য জাতিয়তাবাদীদের সঙ্গে ১৯২৫ সালে তাকে গ্রেফতার করে ব্রিটিশ সরকার। ১৯২৭ সালে মুক্তির পর তিনি ভারতীয় কংগ্রেসের সেক্রেটারি নিযুক্ত হন। ভারত বর্ষের স্বাধীনতার দাবিতে তিনি নেহরুর সঙ্গে যোগ দেন। কিছুদিন পরে তাকে আবার গ্রেফতার করা হয়। ১৯৩০ সালে আবার কলকাতার মেয়র নির্বাচিত হন।

মুক্তির পর তিনি ইউরোপ চলে যান। সেখানে ভারতীয় শিক্ষার্থী ও বেনিতো মুসোলিনীসহ বিভিন্ন ইউরোপীয় রাজনীতিবিদের সঙ্গে দেখা করেন। তিনি ‘দ্য ইন্ডিয়ান স্ট্রাগল’ নামে বই লিখেন। তবে ব্রিটিশ সরকার তার এই বইকে নিষিদ্ধ করে দেয়।

১৯৩৯ সালে তিনি কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচিত হন। কিন্তু তার বিপ্লবী চিন্তা ধারার কারণে গান্ধী ও নেহরুর সঙ্গে মতবিরোধ দেখা দেয়। ফলে তিনি কংগ্রেস থেকে পদত্যাগ করেন।

তিনি বিপ্লবী ধারার সমর্থকদের নিয়ে ‘অল ইন্ডিয়া ফরওয়ার্ড ব্লক’ গড়ে তুলেন। তিনি ছিলেন সমাজতান্ত্রিক কর্তৃত্ববাদে বিশাসী। তুরস্কের জনক কামাল আতাতুর্কের সঙ্গে তিনি দেখা করতে চান। ব্রিটিশরা সে সুযোগ দেয়নি। পরে তিনি ব্রিটেনের লেবার পার্টির নেতাদের সঙ্গে দেখা করেন।

১৯৩৯ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে সুভাসচন্দ্র বসু ব্রিটিশদের সহযোগিতা করতে আপত্তি জানান। ব্রিটিশ সরকার তাকে গ্রেফতার করে। অনশনের ফলে সাত দিন পর তিনি মুক্তি পান। মুক্তির পর জার্মানিতে পালিয়ে যান। তিনি আজাদ হিন্দ রেডিওতে কাজ শুরু করেন। তিনি বার্লিনে ‘ফ্রি ইন্ডিয়া সেন্টার’ প্রতিষ্ঠা করেন এবং সাড়ে চার হাজার ভারতীয় বিদ্রোহীদের নিয়ে দল গঠন করেন।

ভারতকে স্বাধীন করতে তিনি জার্মান নাৎসি বাহিনীর সঙ্গে মিলে ভারত আক্রমণের জন্য প্রস্তুত ছিলেন। ১৯৪২ সালে হিটলারের সঙ্গে দেখা করেন। তার পরামর্শে তিনি জাপানি সাবমেরিনে করে ভারতের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেন।

১৯৪৩ সালে তিনি সিঙ্গাপুর আসেন এবং এখানে রাশবিহারী বসু সেখানকার ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মির নিয়ন্ত্রণ সুভাস বসুর হাতে ছেড়ে দেন। ১৯৪৪ সালের ৪ জুলাই বার্মায় ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল আর্মির উদ্দেশ্যে এক বক্তব্যে তিনি বলেন, “তোমরা আমাকে রক্ত দাও, আমি তোমাদের স্বাধীনতা দেব।”

এসময় ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেয়ার জন্য তিনি ভারতীয়দের প্রতি আহবান জানান। এখান থেকেই জাপান সেনাদের সাহায্যে তিনি ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যান। ১৯৪৫ সালের ১৮ আগস্ট তাইওয়ানে এক বিমান দুর্ঘটনায় মারা যান মহান বিপ্লবী নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু।

তিনি বলেছিলেন, “একটি আদর্শের জন্য একজন ব্যক্তি মারা যেতে পারে, কিন্তু একটি আদর্শ হাজার হাজার মানুষকে বাঁচাতে পারে।”

নাৎসি বাহিনীকে সহযোগিতার কারণে অনেকের কাছে নেতাজী সুভাসচন্দ্র বসু একজন বিতর্কিত ব্যক্তি। প্রকৃতপক্ষে, তিনি একজন চরম দেশপ্রেমিক জাতিয়বাদী নেতা। ব্রিটিশ দুঃশাসনের বিরুদ্ধে তার সংগ্রাম ও আত্মত্যাগ ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা থাকবে।

 

টাইমস/এএইচ/জিএস

১১ দফা দাবিতে সাকিবদের পাশে আন্তর্জাতিক সংগঠন ফিকা

১১ দফা দাবিতে সাকিবদের পাশে আন্তর্জাতিক সংগঠন ফিকা

ক্রিকেটারদের আন্তর্জাতিক সংগঠন দ্য ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনস (ফিকা)

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে: পাপন

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে: পাপন

দেশের ক্রিকেট নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ

এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

এমপি মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সুনামগঞ্জ-১ আসনের সরকার দলীয় সাংসদ মোয়াজ্জেম

মতামত

মেয়েটিকে আমরা বেঁচে থাকতে দিলাম না…

মেয়েটিকে আমরা বেঁচে থাকতে দিলাম না…

বান্দরবান থানচি উপজেলার যোসেফ পাড়ার বাসিন্দা  লিয়ানা ত্রিপুরা পপি (২৩)। চার বছর আগে উচ্চ শিক্ষার জন্য ঢাকায় চলে আসেন। পড়াশুনার পাশাপাশি গুলশানের একটি বিউটি পার্লারে চাকরি করতেন তিনি। গত শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পার্লারে যাওয়ার সময় গুলশানে একটি প্রাইভেট কারের (ঢাকা মেট্রো ঘ ১৩০৯০২) ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই মারা যান পপি।

রাজনীতি

মেননের বক্তব্যে বিব্রত নয় ১৪ দল: নাসিম

মেননের বক্তব্যে বিব্রত নয় ১৪ দল: নাসিম

গত নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারেনি- ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের এমন বক্তব্যে নিয়ে ১৪ দল বিব্রত নয় বলে জানিয়েছেন এর সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম। মঙ্গলবার দুপুরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৪ দল আয়োজিত বাংলাদেশ-ভারত সমঝোতা স্মারক শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নাসিম এ কথা বলেন। তিনি বলেন, কোনও একক ব্যক্তির বক্তব্যে ১৪ দল বিব্রত হবে কেন? এটি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, অসাম্প্রদায়িকতা, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ভিত্তিতে করা আদর্শিক জোট। জোটের বৈঠকে এ বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে। তারপর করণীয় ঠিক করা হবে।’

জাতীয়

কুমিল্লায় ছেলের হাতে মার খেয়ে মায়ের আত্মহত্যা

কুমিল্লায় ছেলের হাতে মার খেয়ে মায়ের আত্মহত্যা

জমিজমা নিয়ে মায়ের সঙ্গে ঝামেলা চলছিল কুমিল্লার তিতাস উপজেলার কড়িকান্দি ইউনিয়নের বন্দরামপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. শাকিলের(৩৭)।  এ নিয়ে পারিবারিক কলহ সৃষ্টি হয় পরিবারে। সোমবার ছেলের হাতে দুই দফা মার খান মা লতিফা বেগম (৫৭)। ক্ষোভে অভিমানে মঙ্গলবার সকালে লতিফা বেগম বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকে ছেলে শাকিল পলাতক। এ ঘটনায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে শাকিল ও তার স্ত্রী জেসমিন আক্তারকে আসামি করে লতিফার স্বামী আবুল কাশেম তিতাস থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ জেসমিনকে আটক করেছে।

জাতীয়

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ

১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।  মঙ্গলবার বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) ওয়েবসাইটে ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ১৩ হাজার ৩৪৫ জন প্রার্থী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। স্কুল পর্যায়ে ১০ হাজার ৯৬৮ জন, স্কুল-২ পর্যায়ে ৭৭০ জন এবং কলেজ পর্যায়ে ১ হাজার ৬০৭ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষার সূচি পরবর্তী সময়ে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে।

জাতীয়

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যা: জয়পুরহাটে ৭ জনের মৃত্যুদণ্ড

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার দেওড়া গ্রামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে সাতজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ বি এম মাহমুদুল হাসান এ রায় দেন।

বিনোদন

পুনমের সাথে সন্ধ্যা কাটাতে চাইলে...

পুনমের সাথে সন্ধ্যা কাটাতে চাইলে...

ভারতীয় মডেল পুনম পাণ্ডে। আলোচনায় থাকার জন্য মাঝে মাঝে অদ্ভুদ সব কাণ্ড ঘটিয়ে বসেন তিনি। কখনো কাপড় খুলে, আবার কখনো শরীর দেখিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবরের খোরাক হন এই মডেল। তবে পুনম ভক্তদের এমন চমক দেন, যা অন্যদের পক্ষে বলাই কঠিন। প্রায়ই ভক্তদের সামনে রীতিমতো নিজেকে উন্মোচন করে আলোচনায় থাকেন তিনি। চমক দিতে গিয়ে কখনো গায়ে একটা সুতোও থাকে না তার। নগ্নতা নিয়ে তো লজ্জা নেইই বরং পুরুষমনে সুড়সুড়ি কীভাবে দিতে হয়, তা ভালোই জানেন পুনম। এদিকে দীপাবলির আগে অনুরাগীদের আনন্দ দিতে নতুন উপহার নিয়ে হাজির হলেন পুনম পাণ্ডে। তবে এবারের উপহার সম্পূর্ণ আলাদা। এবার কোনো কাপড় খোলার ব্যাপার নেই, এমনকি নগ্ন হওয়ার বিষয়ও নেই। এবার নতুন এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছেন পুনম। এই প্রতিযোগিতা তার ‘বেটাইম স্টোরিজ’ নিয়ে।