• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দৈনন্দিন জীবনে সংগীতের প্রভাব

দৈনন্দিন জীবনে সংগীতের প্রভাব

ফিচার ডেস্ক১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০১এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

সংগীত আমাদের দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি অংশের সঙ্গে সম্পর্কিত। আমাদের ধর্মীয় আচার পরিচালিত হয় সংগীতের দ্বারা, শিশুরা গানে গানে বর্ণমালা শিখে, এমনকি আমাদের দোকানপাট, শপিংমল ইত্যাদিও গান-বাজনায় কোলাহলপূর্ণ থাকে।

কিন্তু আমাদের দৈনন্দিন জীবনে গানের উপস্থিতি এবং এর প্রভাব ব্যক্তিগত আচরণ ও মনোভাবকে কীভাবে প্রভাবিত করে?

গবেষণা বলছে, সংগীত আমাদের জীবনকে বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অসুস্থতা, হতাশা, জীবনযাত্রার ব্যয়, কর্মক্ষমতা ও জগত সম্পর্কে আমাদের উপলব্ধিকেও সংগীত প্রভাবিত করে।

আবার কিছু কিছু গবেষণা বলছে, আমাদের আক্রমণাত্মক ও রক্ষণশীল মনোভাব গড়ে তুলতেও গানের ভূমিকা রয়েছে, যা আমাদেরকে অপরাধ করতে উৎসাহিত করে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ভীতি প্রদর্শনমুলক ছন্দ বিশিষ্ট র‍্যাপ গান বা ড্রিল মিউজিকয়ের সঙ্গে অপরাধ প্রবণতার সম্পর্ক রয়েছে। যেখানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর বিকাশের ফলে এই প্রবণতা আরও ব্যাপক হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি কলেজ বার্মিংহামের অপরাধ বিজ্ঞানী ক্রেইগ পিংকনে বলেন, সাধারণত ড্রিল মিউজিকের বা র‍্যাপ গানের বিষয়বস্তু দলীয় বিদ্বেষমুলক হয়ে থাকে। এ কারণে অন্যান্য রীতির গানে না হলেও এ ধরনের গানের ক্ষেত্রে শিল্পী গানের কথায় কী বলছে শ্রোতারা তা বিচার করে।

সংগীতের পাশাপাশি সহিংসতা সৃষ্টিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভূমিকা সম্পর্কেও এই গবেষণায় আলোকপাত করা হয়েছে। দেখা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাহায্যে বিভিন্ন দলীয় বিদ্বেষমুলক মন্তব্য ছড়িয়ে পড়ে। এটা তার সমর্থক ও বিরোধীদেরকে বিভিন্ন মন্তব্য করতে উৎসাহিত করে, যা মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে।

তবে কেবল সংগীতের কারণেই নয়, অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধির জন্য আরও অনেকগুলো কারণ রয়েছে বলে গবেষক ক্রেইগ পিংকনে মনে করেন।

তিনি বলেন, দরিদ্রতা, হতাশা, বর্ণবাদ, দুর্বল নেতৃত্ব, বাণিজ্যিক বিনিয়োগের অভাব, সম্পদ ও সুযোগের অপ্রতুলতা ইত্যাদি উপাদান অপরাধ প্রবণতার জন্য দায়ী।

কানাডার ম্যাকগ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড্যানিয়েল ল্যাভিটিন বলেন, সংগীত সহিংসতা সৃষ্টি করে কিনা তা বিশ্লেষণ করা অনেক কঠিন। কারণ বিভিন্ন গবেষণায় মিশ্র ফলাফল পাওয়া গেছে, যেখানে অধিকাংশ গবেষণায় সুনিয়ন্ত্রিত পরীক্ষণের পরিবর্তে পর্যবেক্ষণমুলক পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে।

তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, যারা আগে থেকেই বিভিন্ন সহিংসতার সঙ্গে জড়িত তারাও সংগীতের প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে। এর মানে এই নয় যে, যারাই সংগীত শুনবে তারাই সহিংস হয়ে যাবে।

এদিকে ২০০৩ সালে জার্নাল অব পারসোনালিটি অ্যান্ড সাইকোলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গিয়েছিল যে, সংগীত আক্রমণাত্মক চিন্তা ও মনোভাব বৃদ্ধি করতে পারে। গবেষণামুলক পাঁচটি পরীক্ষায় দেখা যায়, যারা একই শিল্পীর অহিংস গান শুনেছিল তাদের থেকে যারা সহিংস গান শুনেছিল তারা বেশি শত্রুভাবাপন্ন।

তবে সহিংস রীতির গানের বিপরীতে অহিংস ধারার গানগুলো অপরাধ প্রবণতা হ্রাস করতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন।

 

টাইমস/এএইচ/জিএস

পদ্মার চেয়েও বড় সেতু হতে যাচ্ছে বরিশাল-ভোলায়

পদ্মার চেয়েও বড় সেতু হতে যাচ্ছে বরিশাল-ভোলায়

বরিশাল থেকে ভোলায় দেশের দীর্ঘতম সেতু নির্মাণ করা হবে। যা

নতুন বছরে কাজ শুরু হবে আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রোরেলের

নতুন বছরে কাজ শুরু হবে আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রোরেলের

এ বিষয়ে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) অতিরিক্ত প্রকল্প

ইবনে খালদুন: একজন বিখ্যাত দার্শনিকের গল্প

ইবনে খালদুন: একজন বিখ্যাত দার্শনিকের গল্প

ইবনে খালদুন। মুসলিম বিশ্বের শ্রেষ্ঠ দার্শনিকদের অন্যতম একজন। মধ্য যুগে

ইতিহাস

চেরোনবিল: পারমাণবিক দুর্ঘটনার ভয়ানক ইতিহাস

চেরোনবিল: পারমাণবিক দুর্ঘটনার ভয়ানক ইতিহাস

প্রযুক্তির উন্নয়ন ও জীবনযাত্রার মান পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পারমানবিক প্রযুক্তির ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। বিদ্যুৎ উৎপাদন, মারণাস্ত্র তৈরী, চিকিৎসা প্রভৃতি বহু কাজে রয়েছে এর বিস্তর ব্যবহার। পারমানবিক শক্তি ব্যবহারের জন্য প্রয়োজন হয় পারমানবিক রিয়্যাক্টরের।

লাইফস্টাইল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

দেহের নানা উপকারে নারিকেল

নারিকেল গাছ ‘স্বর্গীয় গাছ’ হিসেবে সবার কাছে সমাদৃত ও সুপরিচিত। এটা এমন এক বৃক্ষ যার প্রতিটি অঙ্গ জনজীবনে কোনো না কোনোভাবে কাজে আসে। এ গাছের পাতা, ফুল, ফল, কাণ্ড, শিকড়, সব কিছুই বিভিন্ন ছোট-বড় শিল্পের কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহার হয়ে থাকে।

জাতীয়

তূর্ণা নিশীথার চালকসহ ৩ জন দায়ী: রেলমন্ত্রী

তূর্ণা নিশীথার চালকসহ ৩ জন দায়ী: রেলমন্ত্রী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনের লোকোমাস্টার তাছের উদ্দিন, সহকারী লোকোমাস্টার অপু দে এবং গার্ড মো. আবদুর রহমানকে দায়ী করেছে রেলওয়ের তিনটি তদন্ত কমিটি। বুধবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন এ তথ্য দেন।

উক্তি প্রতিদিন

“কথার শক্তিকে না জেনে মানুষকে জানা অসম্ভব”

“কথার শক্তিকে না জেনে মানুষকে জানা অসম্ভব”

চীনের ঐতিহ্যিক আর সংস্কৃতির কথা বলতে গেলে সে দেশের একজন বিখ্যাত ব্যক্তির কথা অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে, তিনি হলেন কনফুসিয়াস। কনফুসিয়াস জন্মেছিলেন প্রাচীন চীনের লু নামক ক্ষুদ্র রাজ্যে (বর্তমানে শ্যানডং প্রদেশের অন্তর্গত) আনুমানিক ৫৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে।

জাতীয়

নুসরাতের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার রায় ২৮ নভেম্বর

নুসরাতের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার রায় ২৮ নভেম্বর

ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলার রায় ২৮ নভেম্বর ঘোষণা করা হবে। বুধবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন রায় ঘোষণার এই তারিখ ধার্য করেন। সাইবার ট্রাইব্যুনালের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) নজরুল ইসলাম শামীম জানান, ফেনীর মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহানের আপত্তিকর ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়। এ মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে। আদালত আগামী ২৮ নভেম্বর রায় ঘোষণার দিন ঠিক করেছেন।

ভ্রমণ

এই শীতে ঘুরে আসুন চায়ের রাজধানীতে পর্ব-১

এই শীতে ঘুরে আসুন চায়ের রাজধানীতে পর্ব-১

যত দূর চোখ যায় কেবল সবুজের হাতছানি। চা বাগানের সারি সারি টিলা, আঁকাবাঁকা পাহাড়ি পথ আর ঘন সবুজ অরণ্যের অপরূপ সৌন্দর্য যে কাউকে আকৃষ্ট করে। তাই পর্যটকরা বার বার ছুটে যায় চায়ের রাজধানীখ্যাত শ্রীমঙ্গলের চিরসবুজের শোভা আর বৃষ্টিস্নাত পাহাড়ি সৌন্দর্য দেখতে। ৯২টি চা বাগানের সতেজ সবুজ পাতায় পূর্ণ হয়ে আছে মৌলভীবাজার জেলার নিসর্গশোভা। পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে এবং চায়ের রাজধানী হিসেবে মৌলভীবাজার জেলার খ্যাতি সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়েছে। নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক দৃশ্য আর নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি এই মৌলভীবাজারে বেড়াতে যাওয়ার এখনই সময়।