• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

দৈনন্দিন জীবনে সংগীতের প্রভাব

দৈনন্দিন জীবনে সংগীতের প্রভাব

ফিচার ডেস্ক১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০১এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

সংগীত আমাদের দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি অংশের সঙ্গে সম্পর্কিত। আমাদের ধর্মীয় আচার পরিচালিত হয় সংগীতের দ্বারা, শিশুরা গানে গানে বর্ণমালা শিখে, এমনকি আমাদের দোকানপাট, শপিংমল ইত্যাদিও গান-বাজনায় কোলাহলপূর্ণ থাকে।

কিন্তু আমাদের দৈনন্দিন জীবনে গানের উপস্থিতি এবং এর প্রভাব ব্যক্তিগত আচরণ ও মনোভাবকে কীভাবে প্রভাবিত করে?

গবেষণা বলছে, সংগীত আমাদের জীবনকে বিভিন্নভাবে প্রভাবিত করতে পারে। অসুস্থতা, হতাশা, জীবনযাত্রার ব্যয়, কর্মক্ষমতা ও জগত সম্পর্কে আমাদের উপলব্ধিকেও সংগীত প্রভাবিত করে।

আবার কিছু কিছু গবেষণা বলছে, আমাদের আক্রমণাত্মক ও রক্ষণশীল মনোভাব গড়ে তুলতেও গানের ভূমিকা রয়েছে, যা আমাদেরকে অপরাধ করতে উৎসাহিত করে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ভীতি প্রদর্শনমুলক ছন্দ বিশিষ্ট র‍্যাপ গান বা ড্রিল মিউজিকয়ের সঙ্গে অপরাধ প্রবণতার সম্পর্ক রয়েছে। যেখানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর বিকাশের ফলে এই প্রবণতা আরও ব্যাপক হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি কলেজ বার্মিংহামের অপরাধ বিজ্ঞানী ক্রেইগ পিংকনে বলেন, সাধারণত ড্রিল মিউজিকের বা র‍্যাপ গানের বিষয়বস্তু দলীয় বিদ্বেষমুলক হয়ে থাকে। এ কারণে অন্যান্য রীতির গানে না হলেও এ ধরনের গানের ক্ষেত্রে শিল্পী গানের কথায় কী বলছে শ্রোতারা তা বিচার করে।

সংগীতের পাশাপাশি সহিংসতা সৃষ্টিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ভূমিকা সম্পর্কেও এই গবেষণায় আলোকপাত করা হয়েছে। দেখা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাহায্যে বিভিন্ন দলীয় বিদ্বেষমুলক মন্তব্য ছড়িয়ে পড়ে। এটা তার সমর্থক ও বিরোধীদেরকে বিভিন্ন মন্তব্য করতে উৎসাহিত করে, যা মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে।

তবে কেবল সংগীতের কারণেই নয়, অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধির জন্য আরও অনেকগুলো কারণ রয়েছে বলে গবেষক ক্রেইগ পিংকনে মনে করেন।

তিনি বলেন, দরিদ্রতা, হতাশা, বর্ণবাদ, দুর্বল নেতৃত্ব, বাণিজ্যিক বিনিয়োগের অভাব, সম্পদ ও সুযোগের অপ্রতুলতা ইত্যাদি উপাদান অপরাধ প্রবণতার জন্য দায়ী।

কানাডার ম্যাকগ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড্যানিয়েল ল্যাভিটিন বলেন, সংগীত সহিংসতা সৃষ্টি করে কিনা তা বিশ্লেষণ করা অনেক কঠিন। কারণ বিভিন্ন গবেষণায় মিশ্র ফলাফল পাওয়া গেছে, যেখানে অধিকাংশ গবেষণায় সুনিয়ন্ত্রিত পরীক্ষণের পরিবর্তে পর্যবেক্ষণমুলক পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়েছে।

তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, যারা আগে থেকেই বিভিন্ন সহিংসতার সঙ্গে জড়িত তারাও সংগীতের প্রতি আকৃষ্ট হতে পারে। এর মানে এই নয় যে, যারাই সংগীত শুনবে তারাই সহিংস হয়ে যাবে।

এদিকে ২০০৩ সালে জার্নাল অব পারসোনালিটি অ্যান্ড সাইকোলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা গিয়েছিল যে, সংগীত আক্রমণাত্মক চিন্তা ও মনোভাব বৃদ্ধি করতে পারে। গবেষণামুলক পাঁচটি পরীক্ষায় দেখা যায়, যারা একই শিল্পীর অহিংস গান শুনেছিল তাদের থেকে যারা সহিংস গান শুনেছিল তারা বেশি শত্রুভাবাপন্ন।

তবে সহিংস রীতির গানের বিপরীতে অহিংস ধারার গানগুলো অপরাধ প্রবণতা হ্রাস করতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন।

 

টাইমস/এএইচ/জিএস

ঐতিহ্যবাহী  ‘জাহাজবাড়ি’ স্থাপনায় নতুন নকশা অনুমোদন দেবে না রাজউক   

ঐতিহ্যবাহী  ‘জাহাজবাড়ি’ স্থাপনায় নতুন নকশা অনুমোদন দেবে না রাজউক  

হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে ভেঙে ফেলা পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী জাহাজবাড়ি স্থাপনায় নতুন কোনো নকশা অনুমোদন দেওয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। এ প্রসঙ্গে রাজউকের উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণের সদস্য (যুগ্ম সচিব) আবুল কালাম আজাদ বাংলাদেশ টাইমস’কে বলেন, জাহাজবাড়ির মতো ঐতিহ্যবাহী ভবন ভেঙে খুবই খারাপ কাজ করা হয়েছে। তবে আমাদের কাছে ওয়াক্ফ প্রশাসক স্বাক্ষরিত একটি চিঠি এসেছিল। আমরা সেই চিঠি মোতাবেক ভেঙে ফেলা সেই জাহাজবাড়ির স্থাপনায় কোনো নকশা অনুমোদন দেব না।

দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে রোহিঙ্গারা: প্রধানমন্ত্রী

দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হতে পারে রোহিঙ্গারা: প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গাদের দ্রুত মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন করা না গেলে বাংলাদেশের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা ব্যাহত হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার জাতীয় সংসদে কিশোরগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ও পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) নূর মোহাম্মদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

বড়গুনায় ফিল্মি স্টাইলে খুন: সন্ত্রাসীদের সাথে লড়েও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী   

বড়গুনায় ফিল্মি স্টাইলে খুন: সন্ত্রাসীদের সাথে লড়েও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী  

বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে শত শত লোকের উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় স্বামীকে বাঁচাতে সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করতে প্রাণপন চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন স্ত্রী। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডের একটি ভিডিও এরইমধ্যে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

রাজনীতি

হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল ইউনিটে এরশাদ: জি এম কাদের

হাসপাতালের ক্রিটিক্যাল ইউনিটে এরশাদ: জি এম কাদের

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে বুধবার সকালে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) ‘ক্রিটিক্যাল ইউনিটে’ ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার মতিঝিলের এজিবি কলোনির মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির সিলেট ও চট্টগ্রামের বিভাগীয় সম্মেলনে এ তথ্য দেন এইচ এম এরশাদের ছোট ভাই ও জাপার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

জাতীয়

ঘুষ কেলেঙ্কারিতে এনামুল বাছিরের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে: দুদক

ঘুষ কেলেঙ্কারিতে এনামুল বাছিরের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে: দুদক

পুলিশের বিতর্কিত ডিআইজি মিজানের কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) বরখাস্তকৃত পরিচালক এনামুল বাছিরের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে। অনুসন্ধানে সত্যতা পাওয়ার পর এনামুল বাছিরকে দেশত্যাগের নিষেধাজ্ঞা দিয়ে চিঠিও দিয়েছে দুদকের অনুসন্ধান টিম।

রাজনীতি

নাশকতার অভিযোগে চট্টগ্রাম বিএনপির ৫২ নেতাকর্মী কারাগারে   

নাশকতার অভিযোগে চট্টগ্রাম বিএনপির ৫২ নেতাকর্মী কারাগারে  

চট্টগ্রামে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নাশকতার অভিযোগে করা ‘গায়েবি’ মামলায় বিএনপির ৫২ নেতাকর্মীর জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম মো. আল ইমরান খান শুনানি শেষে এই আদেশ দেন। কারাগারে পাঠানো আসামিদের সবাই নগরের পতেঙ্গা থানা বিএনপির নেতাকর্মী।

রাজনীতি

৭১ ইউনিয়নে আ. লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

৭১ ইউনিয়নে আ. লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

আটটি বিভাগের ৩৭ জেলার ৭১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়। খবর বাসসের।

জাতীয়

ভিকারুননিসার সামনে নারী খুন: ২৮ বছর পর সচল হচ্ছে মামলা

ভিকারুননিসার সামনে নারী খুন: ২৮ বছর পর সচল হচ্ছে মামলা

রাজধানীর ভিকারুননিসা নুন স্কুলের সামনের ছিনতাইয়ের সময় এক নারী নিহতের ঘটনায় করা খুনের মামলার ওপর স্থগিতাদেশ ২৮ বছর পর তুলে নিয়েছেন হাইকোর্ট। মামলাটিতে অধিকতর তদন্তের আদেশের বিরুদ্ধে করা ২৮ বছর আগের আবেদন খারিজ করে দিয়ে বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রায় দেন।

চাকরি

চট্টগ্রাম কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৫৩ জনের চাকরির সুযোগ

চট্টগ্রাম কর কমিশনারের কার্যালয়ে ৫৩ জনের চাকরির সুযোগ

কর কমিশনারের কার্যালয়, কর অঞ্চল-৪ চট্টগ্রাম-এ আটটি পদের বিপরীতে ৫৩ জনকে নিয়োগ দিতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ। আগ্রহী ও যোগ্য প্রার্থীরা ২৫ জুলাই ২০১৯ পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।