• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ২৯ আশ্বিন ১৪২৬

কোস্টারিকার দ্বীপে হাজার হাজার কোটি টাকার গুপ্তধন!

কোস্টারিকার দ্বীপে হাজার হাজার কোটি টাকার গুপ্তধন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৯পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

রবার্ট লুইস স্টিভেনসনের বিখ্যাত কিশোর উপন্যাস ‘ট্রেজার আইল্যান্ড’। একটি দ্বীপে বহু গুপ্তধনের কথা উল্লেখ আছে এই উপন্যাসে। শুধু বইয়ে নয় বাস্তবেও এমন একটি দ্বীপ রয়েছে। যেখানে‌ রয়েছে অমূল্য বিপুল গুপ্তধন। কোস্টারিকার মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৫৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমের দ্বীপ কোকোজ আইল্যান্ড এই গুপ্তধনের দ্বীপ।

৩০০ ফিটের খাড়াই পাহাড়, কালো বালির সৈকত, অসংখ্য নদী আর ঝরনায় সাজানো এই রহস্যময় দ্বীপ দেখেই নাকি মাইকেল ক্রিকটনের মনে ‘জুরাসিক পার্ক’ এর প্লট এসেছিল।

প্রাগৈতিহাসিক প্রাণী অবশ্য নেই। দ্বীপের বাসিন্দা ৪০০ রকমের কীটপতঙ্গ এবং ৯০ রকমের পাখির প্রজাতি। আর আছে বাঘ এবং সমুদ্রে হাতুড়ি-মাথা হাঙর।

গুপ্তধন শিকারিদের কিন্তু এই বিপুল প্রাণী বৈচিত্র্য নিয়ে বিন্দুমাত্র আগ্রহ নেই। বরং তাদের আগ্রহ এই দ্বীপে লুকনো ৭ হাজার ১৫০ কোটি ২৫ লাখ টাকার লুকানো সম্পদে।

রটনার সূত্রপাত ১৮২০ খ্রিষ্টাব্দে। লাতিন আমেরিকা দখলকারী স্প্যানিশ শক্তির বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে পেরুর স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্পেন অধিকৃত লিমা আক্রমণের পরিকল্পনা করেন আর্জেন্তিনীয় জেনারেল জোসে সান দে মার্টিন। যুদ্ধের আশঙ্কায় তৎকালীন স্প্যানিশ গভর্নর ঠিক করেন সমস্ত সম্পদ লুকিয়ে ফেলা হবে। যাতে যুদ্ধে কোনও সম্পদহানি না হয়।

সম্পদ লুকানোর জন্য স্পেনীয় শাসকরা তখন ব্রিটিশ ক্যাপ্টেন উইলিয়াম থম্পসনের শরণাপন্ন হন। তার জাহাজ ‘মেরি ডিয়ার’ সোনা-রুপোর মুদ্রা, রাশি রাশি হীরা এবং প্রমাণ আকারের ভার্জিন মেরির মূর্তি নিয়ে রওনা দেন অজানা গন্তব্যে। শোনা যায়, ক্যাপ্টেন থম্পসন ও তার সঙ্গীরা জাহাজের বাকি সবাইকে হত্যা করে জাহাজ নিয়ে চলে যান কোকোজ দ্বীপে।

তাদের ধাওয়া করে আসা স্পেনীয় যুদ্ধজাহাজ পাল্টা আক্রমণ চালায়। বন্দি করা হয় জাহাজের প্রায় সব ষড়যন্ত্রীকেই। কিন্তু সন্ধান মেলেনি বিপুল সম্পদের। সেই সঙ্গে নিরুদ্দেশ হয়ে যান ক্যাপ্টেন থম্পসন এবং তার এক সঙ্গী। দ্বীপের কোথায় তারা সেই সম্পত্তি লুকিয়ে রাখেন, জানা যায়নি। তাদের রেখে যাওয়া সম্পদের নাম হয় ‘ট্রেজার অব লিমা’।

গুপ্তধনের লোভে এরপর থেকে দ্বীপে অভিযান চালিয়েছেন অসংখ্য অভিযাত্রী। কখনও শোনা গিয়েছে, উদ্ধার হয়েছে গুপ্তধন। কিন্তু তারপরে কোনও প্রামাণ্য তথ্য পাওয়া যায়নি। সব থেকে গিয়েছে গুজবের আকারেই।

জনশ্রুতি আছে জন কিটিং নামে এক ব্যক্তি নাকি গুপ্তধনের সন্ধান পেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তা কোনও দিন দেখাতে পারেননি।

জার্মান অভিযাত্রী অগস্ট গিজলার উনিশ শতকের শেষে কোকোজ দ্বীপের গভর্নর হয়েছিলেন। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে দ্বীপে প্রচুর খোঁজাখুঁজি করেন। সুড়ঙ্গ কাটেন দ্বীপের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। কিন্তু তার হাতে কয়েকটি মুদ্রা ছাড়া আর কিছুই আসেনি। ১৯০৮ সালে দ্বীপ ছেড়ে চলে যান হতাশ গিজলার।

তবে ট্রেজার অব লিমা-র আগে থেকেই কোকোজ দ্বীপ বিখ্যাত গুপ্তধনের জন্য। অনেক দিন ধরেই এখানে লুঠের জিনিস লুকিয়ে রাখত জলদস্যুরা। প্রথম জীবনে ব্রিটিশ নৌসেনা ক্যাপ্টেন বেনেট গ্রাহাম পরে হয়েছিল কুখ্যাত জলদস্যু। সে নাকি দস্যুজীবনে লুট করেছিল মোট ৩৫০ টন সোনা। সে সবই লুকিয়ে রেখেছিল কোকোজ দ্বীপে।

আর এক নৃশংস জলদস্যু বেনিতো বোনিতোও নাকি তার লুটের বিপুল সম্পদ লুকিয়েছিল এই নির্জন দ্বীপেই।

কোকোজ আইল্যান্ডে ৫০০-র বেশি অভিযান হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কোস্টারিকা সরকার এই দ্বীপে সাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ করে দেয়। অভিযাত্রী বা পর্যটকদের কাছে এই দ্বীপ এখন অগম্য। স্কুবা ডাইভিং, জাহাজে পাড়ি বা আকাশপথে চক্কর দিয়ে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো যায়।

জনশ্রুতি ও কিংবদন্তিতে অবিশ্বাসী লোকজনের দাবি, জলদস্যুদের গল্প মনগড়া। আদতে কোকোজ দ্বীপে কোনও গুপ্তধনই নেই। যা আছে, তা হলো অপূর্ব প্রাকৃতিক সম্পদ। ক্রান্তীয় অরণ্যের বিরল জীববৈচিত্রে ভরা এই দ্বীপের সেই অমূল্য সম্পদকে রক্ষা করতে পাহারা দেয় কোস্টারিকা সরকারের বনকর্মীরা।

 

টাইমস/এএইচ/এসআই

বান্দরবানে ইউপি নির্বাচনে বিজিবির গুলিতে নিহত ২

বান্দরবানে ইউপি নির্বাচনে বিজিবির গুলিতে নিহত ২

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, ফাত্রাঝিরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়...

দ্রুত সময়ের মধ্যে আবরার হত্যার বিচার, মা-বাবাকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস

দ্রুত সময়ের মধ্যে আবরার হত্যার বিচার, মা-বাবাকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস

এর আগে বিকেলে ৫ টার দিকে গণভবনে আবরার ফাহাদের বাবা...

দিরাইয়ের শিশু হত্যা: স্বজনদের সম্পৃক্ততা পেয়েছে পুলিশ

দিরাইয়ের শিশু হত্যা: স্বজনদের সম্পৃক্ততা পেয়েছে পুলিশ

পুলিশ সুপার জানান, ‘তুহিন হত্যাকাণ্ডে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বাবা...

আন্তর্জাতিক

জেরুজালেমের গভর্নরকে তুলে নিয়ে গেছে ইসরায়েল

জেরুজালেমের গভর্নরকে তুলে নিয়ে গেছে ইসরায়েল

পবিত্রভূমি জেরুজালেমের গভর্নর আদনান গাইথকে তুলে নিয়ে গেছে ইহুদিবাদী ইসরায়েলের পুলিশ বাহিনী। সোমবার ভোরে অভিযান চালিয়ে তাকে আটকের পর তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। প্যালেস্টাইন প্রিজনার্স সোসাইটি এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছ। তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদলু এজেন্সির খবরে বলা হয়, জেরুজালেমের সিলওয়ান এলাকার নিজ বাড়ি থেকে গভর্নর আদনান গাইথকে আটক করা হয়। এসময় ইসরায়েলের পুলিশ তার বাড়ি ও আশপাশের সড়কগুলো নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয়। 

জাতীয়

‘শিবির’ সন্দেহেই আবরার হত্যা:মনিরুল

‘শিবির’ সন্দেহেই আবরার হত্যা:মনিরুল

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘আবরার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ১৯ আসামির মধ্যে চারজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। আসামিদের জবানবন্দিতে বলা হয়, মূলত শিবির সন্দেহেই আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আসামিদের জবানবন্দিতে হত্যার কারণ হিসেবে এমনটাই উঠে এসেছে’

জাতীয়

দুদক প্রধানের পদত্যাগ চাইলেন সাংসদ তাপস

দুদক প্রধানের পদত্যাগ চাইলেন সাংসদ তাপস

শেখ পরিবারের সদস্য এই সংসদ সদস্য বলেন, বেসিক ব্যাংক কেলেঙ্কারির ঘটনার মামলায় বাচ্চুকে আসামি করে চার্জশিট দিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের নির্দেশনা ছিল। কিন্তু দুদক সে নির্দেশনা মানেনি। কী কারণে দুদক এ রকম কাজ করেছে, এটি জাতি জানতে চায়।

জাতীয়

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

সোমবার মেয়েটি স্কুল থেকে বাড়ি ফিরছিল। পথে বিলাশখান এলাকায় রিফাত তার পথরোধ করে। একপর্যায়ে রিফাত ওই ছাত্রীকে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। পরে গ্রামবাসী মেয়েটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ভুক্তভোগী মেয়েটির মা বলেন, ‘মেয়েকে বিয়ে করার জন্য রিফাত দীর্ঘদিন থেকে উত্ত্যক্ত করছিল। মাঝে কিছুদিন মেয়ের পড়ালেখাও বন্ধ রেখেছিলাম। বিষয়টি রিফাতের পরিবারকে জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি’। 

আন্তর্জাতিক

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন এক ভারতীয়সহ তিনজন

অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন এক ভারতীয়সহ তিনজন

বৈশ্বিক দারিদ্র্য লাঘবে অবদান রাখায় চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এক ভারতীয়সহ তিন অর্থনীতিবিদ। তারা হলেন- অভিজিৎ ব্যানার্জি, এস্তার ডুফলো ও মাইকেল ক্রেমার।

স্বাস্থ্য

কাজে মানসিক চাপ সামলাবেন যেভাবে

কাজে মানসিক চাপ সামলাবেন যেভাবে

শারীরিক সমস্যা নিয়ে আমরা সবাই কম বেশি সচেতন। শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য আপ্রান কত চেষ্টাই না করি। কিন্তু শরীরের পাশাপাশি মনের সুস্থতাও যে জরুরী, সে খেয়াল রাখি ক’জনে?