• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ১১ এপ্রিল ২০২০, ২৭ চৈত্র ১৪২৬

ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ ‘ছাল তুলে নাও’

ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ ‘ছাল তুলে নাও’

ফিচার ডেস্ক২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০৫:১৬পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

শিশু সন্তানকে নিয়ে স্কুলে যাচ্ছেন বাবা। হঠাৎ রাস্তায় পড়ে থাকা সিগারেটের প্যাকেট দেখে থমকে দাঁড়ালেন। কুড়িয়ে নিলেন সিগারেটের খালি প্যাকেট। কাঁধে ব্যাগ ঝুলানো শিল্পী চলেছেন রাস্তাধরে। ফুটপাতে পড়ে থাকা সিগারেটের প্যাকেট তিনিও তুলে নিলেন হাতে। একই ভাবে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, যুবক, শ্রমিক, মজুর, শিশু, নারী, পেশাজীবী সবাই সিগারেটের খালি প্যাকেট দেখলেই তুলে নিচ্ছেন হাতে।

এরপর তারা সবাই সেই সিগারেটের প্যাকেটের উপরের আবরণ ছিঁড়ে সাদা কাগজের পরত বের করছেন। আর রূপান্তরিত এই সিগারেটের সাদা প্যাকেটের গায়ে তারা লিখছেন ধূমপান বিরোধী ছোট ছোট স্লোগান। https://www.facebook.com/StopTobaccoBD/posts/869401813515179

কেউ লিখেছেন, ওরা ট্যাক্স ফাঁকি দেয়। কেউ লিখেছেন, ধূমপান ছাড়ুন জীবন বাঁচান। আবার কেউ লিখেছেন, সিগারেট রক্তে বিষ মেশায়। সিগারেট তৈরির কোম্পানিগুলো আইন মানে না। ধূমপায়ী আইন মানে না। ধূমপান মানে আত্মহত্যা। সিগারেটের মুল প্যাকেটের আবরণ তুলে সাদা অংশে এরকম নানা প্রতিবাদী কথা লিখছেন সচেতন মানুষগুলো। আর এসব লেখার নিচে তারা হ্যাশট্যাগ দিয়ে লিখছেন ‘ছাল তুলে নাও’।

‘স্টপ টোব্যাকো বাংলাদেশ’ নামে একটি সংগঠনের ফেসবুক পেজে এ নিয়ে একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে। সামাজিক সচেতনতামূলক এই সংগঠনটি তাদের পেজে লিখেছে, সিগারেট কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে তামাক চাষ করে জমির উর্বরতা ধ্বংস করে দিচ্ছে। তামাক চাষ করে তার ট্যাক্স ফাঁকি দিয়ে উৎপাদিত তামাক বিদেশে নিয়ে যাচ্ছে। এই তামাক দিয়ে আবার এই দেশের মানুষকেই তারা মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে।

সংগঠনটির ফেসবুক পেজে আরও লেখা হয়েছে, এখন থেকে আর এসব মেনে নেয়া হবে না। প্রতিবাদ হবে। এবার থেকে প্রতিবাদ হবে ‘ছাল তুলে নাও’।

প্রতিবাদের মুল স্লোগান ‘ছাল তুলে নাও’ শব্দটি খারাপ শুনালেও যৌক্তিকতা রয়েছে। প্যাকেটের ছাল তুলে নেয়ার মাধ্যমে প্রতিবাদীরা মূলত সিগারেট তৈরির কোম্পানি ও তামাক চাষিদের প্রতি একটা কঠিন বার্তা দিতে চেয়েছেন। অবশ্য ছাল তুলে নেয়ার ব্যাপারটিও একটি বহুজাতিক কোম্পানি বা তার কর্ণধারদের জন্য কম তাচ্ছিল্যের নয়। আর সেই অন্তর্নিহিত আঘাতটি করাই হয়তো ‘ছাল তুলে নাও’ হ্যাশট্যাগের মূল লক্ষ্য।

এটা ব্যতিক্রমী। একদমই নতুন উদ্যোগ। ‘ছাল তুলে নাও’ স্লোগানটি তারা হ্যাশট্যাগ আন্দোলনে পরিণত করতে চাইছে। ধূমপান বিরোধী এই উদ্যোগে অংশ নিতে সারাদেশ থেকে সবার প্রতি আহ্বানও জানিয়েছে সংগঠনটি।

সিগারেটের প্যাকেটের মূল আবরণ তুলে সাদা অংশ বের করে তার ওপর হ্যাশট্যাগ দিয়ে ‘ছাল তুলে নাও’ লেখা প্রতিবাদ সম্বলিত ছবি পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছে তারা। আর এই ছবিগুলো থেকে বাছাইকৃত ছবি নিয়ে ধূমপান বিরোধী প্রতিবাদী প্রদর্শনীর আয়োজন করবে সংগঠনটি।

‘স্টপ টোব্যাকো বাংলাদেশ’ পেজে শেয়ার করা ভিডিওর প্রতিক্রিয়ায় ধূমপান বিরোধী মতামত প্রকাশ করেছেন অধিকাংশ মন্তব্যকারী। তারাও ধূমপান বিরোধী এই আন্দোলন বেগবান করার পক্ষে।

 

টাইমস/এসএন/এইচইউ

ইতালিতে করোনায় প্রাণ হারালেন ১০০ চিকিৎসক

ইতালিতে করোনায় প্রাণ হারালেন ১০০ চিকিৎসক

মহামারী করোনাভাইরাসের ভয়াল থাবায় ইতালি যেন মৃত্যুপুরী। এখনো থামছেনা মৃত্যুর

সন্ধ্যা ৬টার পর ঘরের বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ

সন্ধ্যা ৬টার পর ঘরের বাইরে যাওয়া নিষিদ্ধ

দেশব্যাপী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সন্ধ্যা ৬টার পর নাগরিকদের ঘরের বাইরে

করোনায় প্রাণ গেল আরও ৬ জনের

করোনায় প্রাণ গেল আরও ৬ জনের

দেশে গত ২৪ ঘন্টায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৬ জনের

জাতীয়

সাধারণ ছুটি বাড়ল ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত

সাধারণ ছুটি বাড়ল ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত

মহামারী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবারের ঘোষণার মধ্য দিয়ে চতুর্থ দফায় সাধারণ ছুটি বাড়ানো হলো। এর আগে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব আমহদ কায়কাউস সাধারণ ছুটি বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

জাতীয়

সিঙ্গাপুরে আরও ১১৬ বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত

সিঙ্গাপুরে আরও ১১৬ বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত

সিঙ্গাপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ১১৬ প্রবাসী বাংলাদেশীসহ মোট ২৮৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের বাংলাদেশী প্রবাসীদের সংখ্যা গিয়ে দাড়াল ৩৬০ জনে। সিঙ্গাপুরের স্বাস্থ্য বিভাগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

জাতীয়

করোনা : রাজধানীর মিরপুরে দুটি আবাসিক ভবন লকডাউন

করোনা : রাজধানীর মিরপুরে দুটি আবাসিক ভবন লকডাউন

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে রাজধানীর মিরপুরে আরও দুটি আবাসিক ভবন লকডাউন করা হয়েছে। ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) সূত্রে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জাতীয়

রাজধানীতে আরও দুই সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত

রাজধানীতে আরও দুই সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত

রাজধানী ঢাকায় আরও দুইজন সাংবাদিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে বেসরকারি স্যাটেলাইট চ্যানেল ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনের এক সংবাদকর্মী করোনায় আক্রান্ত হন। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে তিনজন সংবাদকর্মী প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য

করোনাভাইরাস : অ্যাজমা রোগীদের যা জানা প্রয়োজন

করোনাভাইরাস : অ্যাজমা রোগীদের যা জানা প্রয়োজন

নোভেল করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগটির অন্যতম প্রধান উপসর্গ হলো- কফ ও শ্বাসকষ্ট। সাধারণ ঠাণ্ডা বা ইনফ্লুয়েঞ্জার মতোই কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির শ্বাসযন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়, শ্বাসকষ্ট দেখা দেয় এবং অনেক সময় কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস গ্রহণের প্রয়োজন পড়ে। ফলে যাদের অ্যাজমা বা শ্বাসকষ্টের সমস্যা রয়েছে, রোগটি তাদের জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে উঠতে পারে। বিভিন্ন গবেষণা বলছে, যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ কিংবা অ্যাজমার মতো দুরারোগ্য ব্যাধি রয়েছে, কোভিড-১৯তে আক্রান্ত হলে তাদের ঝুঁকি অন্যদের তুলনায় বেশি। তবে রোগটি অ্যাজমা রোগীদেরকে কিভাবে প্রভাবিত করবে কিংবা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায় কিনা, সে বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি।

বিনোদন

প্রবাসীদের পাশে দাঁড়ালেন সুজানা, দিলেন ১৫ দিনের খাবার!

প্রবাসীদের পাশে দাঁড়ালেন সুজানা, দিলেন ১৫ দিনের খাবার!

মডেল অভিনেত্রী সুজানা জাফর। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আটকা পড়েছেন তিনি। পরিস্থিতি যখন স্বাভাবিক ছিল তখন সেখানে গিয়েছিলেন সুজানা, পরে আর ফিরতে পারেননি তিনি।