• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬

ঘরে থাকুন, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন : প্রধানমন্ত্রী

ঘরে থাকুন, স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক২৫ মার্চ ২০২০, ০৮:৩৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

মহান স্বাধীনতা দিবস ও করোনাভাইরাস নিয়ে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৫ মার্চ সন্ধ্যা ৭টায় এ ভাষণ শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রীর এ ভাষণ দেশের সরকারি বেসরকারি সকল টেলিভিশন চ্যানেল ও বেতারে একযোগে প্রচারিত হয়। ভাষণে প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে করোনাভাইরাস বিষয়ে নানা দিকনির্দেশনা দিয়েছেন।

জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারা বিশ্ব আজ করোনাভাইরাসের হুমকি মুখে। বাংলাদেশেও এ ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। তাই এ ভাইরাস যেন বিস্তার করতে না পারে সেজন্য সবাইকে সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে। সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধ এ জাতি সব ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালিয়ে বিজয় অর্জন করেছিল। করোনাভাইরাস আমাদের নতুন যুদ্ধ। তাই সকলের প্রতি আহ্বান, ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে এই যুদ্ধেও আমরা বিজয়ী হবো ইনশাআল্লাহ।

এসময় মসজিদে নামাজ আদায়ের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুসল্লিদের অনুরোধ করছি আপনারা আপাতত ঘরেই নামাজ পড়ুন। হ্যান্ডশেক ও কোলাকুলি পরিহার করুন। সেই সঙ্গে অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদেরও ঘরে বসে প্রার্থনা করার অনুরোধ করছি।

জনগনের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জানি আপনারা এক ধরণের আতঙ্ক ও দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। যাদের আত্মীয় স্বজন এখন বিদেশে আছেন, তারাও এখন উদ্বিগ্ন। সবার মানসিক অবস্থা আমি বুঝতে পারছি। কিন্তু এই কঠিন সময়ে আমাদের আতঙ্কিত ও ধৈর্য্য হারালে চলবে না। এই সংকট মোকাবিলা করতে ধৈর্য্য ও সাহসিকতা ধরে রাখতে হবে।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে তিনি বলেন, আমি সবাইকে অনুরোধ করছি, আপনারা স্বাস্থ্যবিধি ও চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে চলুন। সবাই ঘরে অবস্থান করুন। এতে আপনি যেমন নিরাপদে থাকবেন, তেমনি অন্যরাও আপনার কাছ থেকে সংক্রমিত হওয়া থেকে রক্ষা পাবেন। আপনারা সবাই নিজ নিজ ঘর থেকে খুব বেশি প্রয়োজন না হলে বের হবেন না।

প্রবাসী ও বিদেশ ফেরতদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, আপনারা যারা বিদেশ থেকে দেশে ফিরেছেন, তারা চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া বের হবেন না। প্রত্যেকেই কোয়ারেন্টিন মেনে চলুন। নিকটতম ব্যক্তিদের সংস্পর্শও এড়িয়ে চলুন। ১৪ দিন নিজেকে সবকিছু থেকে আলাদা রাখুন।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, দেশের এই পরিস্থিতিতে কেউ সুযোগ নেয়ার চেষ্টা করবেন না। দেশে প্রচুর খাদ্য মজুদ আছে। অযথা কেউ পণ্যের দাম বাড়াবেন না। যদি কেউ দাম বৃদ্ধি করে, আইনশৃংখলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। ভোক্তাদের বলতে চাই, আপনারা কেউ অতিরিক্ত পণ্য ক্রয় করবেন না। যতটুকু না হলেই নয়, ততটুকু ক্রয় করুন। নিম্ন আয়ের মানুষগুলোকে পণ্য কেনার সুযোগ দিন।

আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেউ আতঙ্কিত ও গুজবে কান দিবেন না। আতঙ্কিত হয়ে পড়লে মানুষের যৌক্তিক চিন্তাভাবনা লোপ পায়। সব সময় পরিবারের সদস্য ও প্রতিবেশীদের প্রতি খেয়াল রাখুন, যেন তারা সংক্রমিত না হয়। আপনার সচেতনতায় একটা পরিবার, সমাজ, সর্বপরি দেশ সুরক্ষিত থাকবে।

এছাড়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকালীন বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল পরিশোধে বিলম্ব মাশুল মওকুফের কথাও উল্লেখ করেন। এছাড়া আগামী ৬ মাস ব্যাংকের ঋণ খেলাপী ঘোষণা বন্ধ, এনজিও সংস্থার কিস্তি উত্তোলন বন্ধ, সব ধরণের গণপরিবহন বন্ধসহ সরকারের বিভিন্ন সেবা খাতের সাময়িক ছাড় ও গৃহিত সিদ্ধান্তের বিষয় উল্লেখ করেন।

 

টাইমস/এসএন

গার্মেন্ট ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার আহ্বান জানিয়েছে বিজিএমইএ

গার্মেন্ট ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার আহ্বান জানিয়েছে বিজিএমইএ

তৈরি পোশাক কারখানা মালিকদের প্রতি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত কারখানা বন্ধ

গণপরিবহন বন্ধ ১১ এপ্রিল পর্যন্ত

গণপরিবহন বন্ধ ১১ এপ্রিল পর্যন্ত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে দেশজুড়ে চলমান গণপরিবহন বন্ধের সময়কাল ১১

আইসোলেশন সেন্টারের জন্য প্রস্তুত যাত্রীবাহী লঞ্চ

আইসোলেশন সেন্টারের জন্য প্রস্তুত যাত্রীবাহী লঞ্চ

করোনায় আক্রান্তদের চিকিৎসায় আইসোলেশন সেন্টার চালুর জন্য প্রয়োজনে যাত্রীবাহী লঞ্চ

জাতীয়

শবে বরাতের ইবাদত ঘরে বসে করুন: ইসলামিক ফাউন্ডেশন

শবে বরাতের ইবাদত ঘরে বসে করুন: ইসলামিক ফাউন্ডেশন

শবে বরাতের নামাজ ও ইবাদত বন্দেগী ঘরে বসে আদায় করার জন্য দেশবাসীর প্রতি বিশেষভাবে আহ্বান জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন (ইফা)। সংস্থাটির মহাপরিচালক আনিস মাহমুদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানানো হয়। ৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্যের মধ্যদিয়ে সারা দেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে ইফা।

জাতীয়

দেশে করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু

দেশে করোনায় আরও ২ জনের মৃত্যু

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গেল ২৪ ঘণ্টায় আরও দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে আট জনে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে শনিবার দুপুরে এক অনলাইন লাইভ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ব্রিফিংকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ, রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা উপস্থিত ছিলেন।

আন্তর্জাতিক

করোনা নিয়ে তরুণদের সতর্ক করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

করোনা নিয়ে তরুণদের সতর্ক করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলছে, ৬০ বছরের কম বয়স্কদের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসা দেয়ার পরও তাদের মৃত্যু হার দিন দিন বাড়ছে। এটা অবশ্যই আশঙ্কাজনক ও আতঙ্কের।

জাতীয়

জেনে নিন বাংলাদেশের কোন জেলায় কতজন করোনায় আক্রান্ত

জেনে নিন বাংলাদেশের কোন জেলায় কতজন করোনায় আক্রান্ত

করোনাভাইরাসে টালমাটাল পুরো বিশ্ব। প্রতিদিনই এই ভাইরাসে প্রাণ হারাচ্ছে সহস্রাধিক মানুষ। বাংলাদেশেও এই ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে।

আন্তর্জাতিক

মাস্ক না পরার ঘোষণা ট্রাম্পের

মাস্ক না পরার ঘোষণা ট্রাম্পের

ক্রমবর্ধমান চাহিদার ফলে বিশ্ব বাজারে মাস্কের ঘাটতির আশঙ্কায় মাস্ক না পেলে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুখ ঢেকে চলার পরামর্শ দিয়েছেন ট্রাম্প। এ বিষয়ে তিনি বলেন, কাপড়ের ঘনত্বের বিচারে ‘স্কার্ফ’ ব্যবহারই মাস্কের ভালো বিকল্প।

স্বাস্থ্য

বাসায় তৈরি করুন হ্যান্ড স্যানিটাইজার

বাসায় তৈরি করুন হ্যান্ড স্যানিটাইজার

সারা বিশ্বে এখন আতঙ্ক একটাই- নতুন করোনাভাইরাস। লাখ লাখ মানুষ এখন নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। মারা যাচ্ছে হাজারে হাজার। এ পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে সবাইকে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হচ্ছে। করোনার জীবাণু শরীরে প্রবেশ ঠেকাতে ও নিজেকে নিরাপদে রাখতে বলা হচ্ছে- অ্যালকোহল-ভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারের কথা।