• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

ভারতের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে স্ট্যাটাস, খুলনায় আ. লীগ নেতা বহিষ্কার

ভারতের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে স্ট্যাটাস, খুলনায় আ. লীগ নেতা বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা১০ অক্টোবর ২০১৯, ০২:০৮পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের চুক্তি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ায় জেরে খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও বাংলা‌দেশ মে‌ডি‌কেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) খুলনা শাখার সভাপতি ডা. শেখ বাহারুল আলমকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সুজিত অধিকারী, সহসভাপতি ও সাবেক সাংসদ মোল্যা জালাল উদ্দিন, সহসভাপতি কাজী বাদশা মিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আক্তারুজ্জামান বাবু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ফরিদ আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

একইসঙ্গে ডা. বাহারুলকে দল থেকে কেন স্থায়ী বহিষ্কার করা হবে না সে বিষয়ে আগামী ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাহারুল আলম বলেন, আমাকে বহিষ্কার করা হয়েছে এটা সত্য। যদিও সংগঠনের নিয়ম অনুযায়ী আগে কারণ দর্শানো হয়, তার জবাব যদি সন্তোষজনক না হয়, সে ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেয়া হয়। এখন তো আর সংগঠনের নিময় নীতি কেউ মানে না। তাই এমনটা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমি ওই স্ট্যাটাসটি দিয়েছি একান্ত ব্যক্তিগতভাবে, দেশকে ভালোবেসে। দেশের প্রতি ভালোবাসা আমার সংগঠনের ঊর্ধ্বে, আমার জীবনের ঊর্ধ্বে। আমাকে সংগঠন থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। আমি দল নিয়ে কিছু বলিনি, প্রধানমন্ত্রীকে নিয়েও কিছু বলিনি। শুধু ভারতের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে বলেছি, যে সব বিষয়ে বাংলাদেশের জনগণকে বঞ্চিত করা হয়েছে তা নিয়ে। এইটুকু যে বলা যাবে না, এটা হতে পারে না।

বাহারুল আলম বলেন, সংগঠন থেকে আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে, তা একমাত্র ব্যক্তিগত প্রতিহিংসা থেকে। দলের যেহেতু পুরনো কোন্দল ছিল তাই কাউকে সরানোর সুযোগ ছিলা না। এখন এ সুযোগটা তারা কাজে লাগিয়েছে।

ভারত-বাংলাদেশ চুক্তি নিয়ে গত ৬ অক্টোবর ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ডা. শেখ বাহারুল আলম। যা বেশ আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেয়। বাংলাদেশ টাইমস এর পাঠকদের জন্য তার সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে দেয়া হলো।

“ভারত–বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় চুক্তি বলা হলেও বাস্তবে একপক্ষীয় সিদ্ধান্ত- বাংলাদেশের জনগণের স্বার্থ ও অধিকার চরম উপেক্ষিত
...........................
দুর্বল অবস্থানে থেকে বন্ধু-প্রতিম শক্তিধর প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সাথে বৈঠকে-ফলাফল শক্তিধরের পক্ষেই আসে। বাংলাদেশ- ভারত উভয়-পক্ষীয় সমঝোতা স্মারক নাম দেয়া হলেও বাস্তবে একপক্ষীয় সিদ্ধান্তই মেনে নিতে হয় দুর্বল রাষ্ট্রকে।

ভারত বাংলাদেশ থেকে তার সকল স্বার্থই আদায় করে নিয়েছে। বিপরীতে বাংলাদেশ ভারতের কাছ থেকে এখনও ন্যায্য হিস্যা আদায় করতে পারেনি।

১) দীর্ঘদিনের আলোচিত তিস্তা নদীর পানি বণ্টন এবারের দ্বিপক্ষীয় আলোচনায় স্থান পায়নি।

২) ভারতের প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট করে কিছু না বললেও তার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ হুংকার দিয়েছে নাগরিকপঞ্জীতে বাদ পড়া জনগণকে বাংলাদেশে ঠেলে দেয়া হবে। তারপরেও এবারের সমঝোতা চুক্তিতে ‘অভ্যন্তরীণ’ অজুহাতে বিষয়টি স্থান পায়নি।

৩) বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা শরণার্থী মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে প্রত্যাবাসনের বিষয়ে ভারত কিছু বলেনি।

৪) তিস্তা নদীর পানি বণ্টন নিয়ে চুপ থাকলেও বাংলাদেশ অংশের ফেনী নদীর পানি ত্রিপুরা রাজ্যের পানীয় জল হিসেবে প্রতিদিন ১.৮২ কিউসেক টেনে নেবে ভারত। এ বিষয়ে বাংলাদেশ সম্মত হয়েছে।

৫) বাংলাদেশের জনগণের তরল গ্যাসের চাহিদা পূরণের ঘাটতি থাকলেও ভারতে তরল গ্যাস রপ্তানির সিদ্ধান্ত হয়েছে এবং যৌথভাবে সে প্রকল্প উদ্বোধনও হয়েছে।

৬) চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ভারত কীভাবে ব্যবহার করবে, তা নির্ধারিত হলেও বাংলাদেশের জন্য ব্যবহারযোগ্য ভারতের কোনও বন্দর সেই তালিকায় ছিল না।

অমানবিক আচরণের শিকার হয়েও বাংলাদেশ পানি ও গ্যাস সরবরাহ দিয়ে মানবিকতার প্রদর্শন করেছে। বাংলাদেশের মানুষের স্বার্থ ও অধিকার উপেক্ষিত রেখে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষ হয়েছে।

শক্তিধর প্রতিবেশীর আধিপত্যের চাপ এতোই তীব্র যে ভবিষ্যতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বজায় থাকবে কিনা আশংকা হয়। কারণ ভারতের চাপিয়ে দেওয়া সকল সিদ্ধান্ত বাংলাদেশকে মেনে নিতে হচ্ছে।”

 

টাইমস/এইচইউ

চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের শতাধিক দোকান

চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের শতাধিক দোকান

চট্টগ্রাম নগরীর নিউ মার্কেট সংলগ্ন জহুর হকার্স মার্কেট ও জালালাবাদ...

ঝিনাইদহে মাহেন্দ্রের ‍পিছনে ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী নিহত

ঝিনাইদহে মাহেন্দ্রের ‍পিছনে ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী নিহত

ঝিনাইদহ শহরের লাউদিয়া এলাকায় মাহেন্দ্রের ‍পিছনের ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী...

শিশু হত্যাকারীদের কঠোরতম সাজা পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

শিশু হত্যাকারীদের কঠোরতম সাজা পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আজকে যারা শিশু নির্যাতন বা শিশু...

জাতীয়

বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার আর নেই

বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার আর নেই

একুশে পদক বিজয়ী বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে মারা গেছেন। এই খবর নিশ্চিত করেছেন তার ছোট ভাই শিল্পী প্রশান্ত কর্মকার। কালিদাস কর্মকারের বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। শুক্রবার দুপুরে তাকে ঢাকার বাসা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ল্যাবএইড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে চিকিৎসকরা কালিদাসকে মৃত ঘোষণা করেন।

আন্তর্জাতিক

আফগানিস্তানে জুমার নামাজে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৬২

আফগানিস্তানে জুমার নামাজে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৬২

আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশের হাসকা মিনা জেলায় একটি মসজিদের ভেতরে বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। খবর আল জাজিরার। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় এই ঘটনা ঘটে। প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খোগিয়ানি বলেছেন, কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছেন। বোমা বিস্ফোরণের সময় পুরো মসজিদটি প্রকম্পিত হয়ে উঠে।

রাজনীতি

‘যুবলীগ করার বয়স নিয়ে গণভবনে আলোচনা হবে’

‘যুবলীগ করার বয়স নিয়ে গণভবনে আলোচনা হবে’

অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা ও টেন্ডারবাজির অভিযোগে সম্প্রতি যুবলীগের বেশ কয়েকজন নেতা গ্রেপ্তার হওয়ার পর যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের বিষয়টি আলোচনায় এসেছে। তার ব্যাংক হিসাব তলব করার পাশাপাশি বিদেশ যাওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। ওমর ফারুকের বর্তমান বয়স ৭১। এই বয়সে যুবলীগের দায়িত্বে থাকা নিয়ে বেশ সমালোচনাও হচ্ছে। যদিও সংগঠনটির গঠনতন্ত্রে নির্দিষ্ট কোনো বয়স সীমা বেঁধে দেয়া নেই। আগামী ২৩ নভেম্বর যুবলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। এই কাউন্সিলে সংগঠনটি পরিচালনার জন্য নতুন নেতৃত্ব আসতে পারে বলে আলোচনা আছে।

রাজনীতি

জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামেন: বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামেন: বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, এখানে বিএনপির আমীর খসরু সাহেব আছেন। ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা আপনাদেরই দায়িত্ব, জনগণ তাকিয়ে আছে। আপনাদেরকে এখন সব রকম বিভেদ ভুলে গিয়ে একত্রিত হতে হবে। জামায়াতকে একটু তালাক দিয়ে আপনারা রাস্তায় নামেন। দেখবেন বাংলাদেশ আপনাদের সাথে আছে। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি আসছে, বেগম খালেদা জিয়ারও মুক্তি হবে। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে উদ্দেশ করে এই আহ্বান জানান তিনি। বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

জাতীয়

ফুটফুটে শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা

ফুটফুটে শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা

পঞ্চগড় শহরের কামাতপাড়া মহল্লার অশোকচন্দ্র মোদকের বাড়ির সামনে থেকে প্রায় এক মাস বয়সী একটি শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটিকে তারা উদ্ধার করেন। তাকে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। কামাতপাড়া মহল্লার পেয়ারা মজুমদার বলেন, ‘প্রায় দুই বছর ধরে এক নারী তার স্বামীকে নিয়ে এ এলাকায় ভাড়া থাকতেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই নারী তার এক মাস বয়সী মেয়েকে আমাদের কাছে দিতে চেয়েছিলেন। আমরা না নেয়ায় তিনি ফিরে যান। পরে শুনি পাশের বাড়ির সামনে একই বয়সের একটি শিশু পাওয়া গেছে। আমার মনে হয়েছে এই শিশুটি ওই নারীর।’

লাইফস্টাইল

হৃদরোগে আক্রান্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে শরীরচর্চা উপকারী

হৃদরোগে আক্রান্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে শরীরচর্চা উপকারী

বর্তমান সময়ে হৃদরোগ একটি মারাত্মক সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে। শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই প্রতিবছর ৬,১০,০০০ জন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন, আর হার্ট অ্যাটাক হয় ৭,৩৫,০০০ লোকের। যাদের বয়স ৬৫ বছরের বেশি, তরুণদের তুলনায় তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা বেশি।