• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

পাহাড়ের কোলের শঙ্খ নদী

পাহাড়ের কোলের শঙ্খ নদী

ফিচার ডেস্ক১৬ মে ২০১৯, ১১:২৭এএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

একটি বাঁক পেরিয়ে আরেকটি বাঁক মানেই নতুন সৌন্দর্যের সংজ্ঞা খোঁজা। যেন নদীর গতিপথ এখানেই শেষ, তবে সেটি নিছক মরীচিকা। আরেকটি বাঁক নিয়ে যাবে নিরুদ্দেশের দিকে। এটিই ‘শঙ্খ’ নদী। যার অপর নাম সাঙ্গু নদী। এ নদীকে নিয়ে চট্টগ্রামে অনেক গান ও গীতিকাব্য রচিত হয়েছে।

শঙ্খ নদী কর্ণফুলীর পর চট্টগ্রাম বিভাগের দ্বিতীয় বৃহত্তম নদী। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে যে কয়টি নদীর উৎপত্তি তার মধ্যে সাঙ্গু নদী অন্যতম। মিয়ানমার সীমান্তবর্তী বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার মদক এলাকার পাহাড়ে এ নদীর জন্ম। নদীটি বান্দরবান জেলা থেকে উৎপত্তি হয়ে অনেক উঁচু উঁচু দুর্গম পাহাড়, গহীন বনাঞ্চল ও অসংখ্য পাহাড়ি জনপদ ছুঁয়ে এঁকেবেঁকে দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে চট্টগ্রামের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে বঙ্গোপসাগরে গিয়ে মিশেছে। উৎস মুখ হতে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত এই নদীর দৈর্ঘ্য ২৭০ কিলোমিটার।

এই নদীর দুপাড়ে বসবাসকারী ৯০ শতাংশই মারমা নৃ-গোষ্ঠীর আদিবাসী। যাদের অধিকাংশের পেশা জুম চাষ।

শঙ্খ নদীর অপার রূপ দেখে মুগ্ধ হবেন না এমন মানুষ পাওয়া ভার। অপূর্ব এই নদীর দুইদিকে পাহাড়ের সারি। বর্ষায় পাহাড় বেয়ে নামে ছোট বড় অসংখ্য ছড়া। ছলছল শব্দে ছড়ার চঞ্চল জল এসে মেশে নদীতে। পাহাড়ের ওপরে ভেসে বেড়ায় মেঘ। মনে হয়, ওই চূড়ায় উঠলেই বুঝি ছোঁয়া যাবে, ধরা যাবে, মেঘের মাঝে ভেসে বেড়ানো যাবে। বান্দরবানে এমনটা মনে হওয়াটা মোটেও বেশি নয়। সাঙ্গুর তীরবর্তী পাহাড়ের চূড়ায় সত্যিই জমে থাকে মেঘ। গাছের ফাঁকে আটকে যায়। সেখানেই ঝরে যায় বৃষ্টি হয়ে।

দেশের সব নদীই বয়ে আনে পলিমাটি। কিন্তু এক্ষেত্রে কিছুটা বৈচিত্র্যপূর্ণ বান্দরবান পার্বত্য জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া শঙ্খ নদী। পলিমাটির পরিবর্তে এ নদীর পুরোটাই নানা ধরনের পাথরে ভর্তি।

প্রকৃতির উদার সৌন্দর্য যেমন মুগ্ধ করবে আপনাকে তেমনি মনে এনে দেবে শান্তি। তবে বড় দলবল নিয়ে ঘুরতে যাওয়াটা সাশ্রয়ী হবে।সেক্ষেত্রে পুরো নৌকা রিজার্ভ নিয়ে বড় পথ পাড়ি দিতে পারবেন ইচ্ছেমত। মাঝিরা বেশ বন্ধুবৎসল।

১৮৬০ সালে তৎকালীন ইংরেজ সরকার এ নদীটিকে গেজেটভূক্ত করেন। তখন এ নদীটির নাম করা হয় সাঙ্গু রিভার। তবে বান্দরবানের আদিবাসীরা এ নদীটিকে রিগ্রাই খিয়াং অর্থাৎ ‘স্বচ্ছনদী’ বলে ডাকে।

তবে সাঙ্গু নদীর প্রকৃত নাম কীভাবে শঙ্খ হলো এটা এখনো অনাবিষ্কৃত। ‘শঙ্খ’ বলতে যে ধরণের সামূদ্রিক শামুকের কথা বোঝায়, নদীর দুপাড়ে যুগযুগ ধরে বংশ পরম্পরায় বসবাসকারী আদিবাসী পাহাড়িরা জানিয়েছেন, এ নদীতে আদৌ সে ধরণের শঙ্খের অস্তিত্ব কখনো ছিলোনা।

কিভাবে যাবেন:

শঙ্খ নদীর সৌন্দর্য চট্টগ্রাম থেকেই উপভোগ করা যাবে। তবে আরও বেশি উপভোগ করতে চাইলে এবং নদীটির উৎসে যেতে চাইলে বান্দরবান যেতে হবে। বদ্দারহাট থেকে বান্দরবানের উদ্দেশ্যে পূবালী ও পূর্বানী পরিবহনের বাস যায়। এসব বাসে জনপ্রতি ২২০ টাকা ভাড়া রাখা হয়।

ঢাকা থেকে বান্দরবানগামী শ্যামলি, হানিফ, ইউনিক, এসআলম, ডলফিন ইত্যাদি বাসে চলে যেতে পারেন বান্দরবান। রাত ১০ টায় অথবা সাড়ে ১১টার দিকে কলাবাগান, সায়েদাবাদ বা ফকিরাপুল থেকে এসব বাস বান্দরবানের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। পৌঁছে যাবেন সকাল ৬টা অথবা ৭টার মধ্যে। ননএসি বাসে জনপ্রতি ভাড়া ৫৫০টাকা। এসি ৯৫০ টাকা।

কোথায় থাকবেন:

বান্দরবানে বিভিন্ন মানের হোটেল রয়েছে। ভাড়া শুরু ৪০০ টাকা থেকে। দরদাম করে উঠবেন।

কি খাবেন:

খাওয়ার জন্য চট্টগ্রাম এবং বান্দরবানে অনেক হোটেল আছে। নদীতে নৌকা দিয়ে ভ্রমণ করতে চাইলে সঙ্গে করে খাবার নিয়ে যেতে হবে।

ভ্রমণ টিপস:

ভ্রমণের সর্বক্ষেত্রে পরিবেশ ও প্রকৃতি সচেতনতার কথা মাথায় রাখবেন। ভ্রমণে নদীতে কোন আবর্জনা ফেলবেন না। আদিবাসীদের সাথে কোনো প্রকার ঝামেলায় যাওয়া যাবে না। ক্যাপ, সানগ্লাস, গামছা এবং মশা থেকে রক্ষার জন্য অডোমস, প্রয়োজনীয় সব ওষুধ সঙ্গে রাখবেন।

 

টাইমস/এএস/এইচইউ

‘আমরা সমস্ত জলাশয় আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনব’

‘আমরা সমস্ত জলাশয় আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনব’

বাড়ির আশপাশের ডোবা, পুকুর ও জলাশয়কে ফেলে না রেখে মাছ চাষ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা খাদ্যের চাহিদা পূরণ করেছি। এখন দৃষ্টি পুষ্টির দিকে। বিল, ঝিল, হাওর, বাওড়, নদী নালায় পরিকল্পিতভাবে মাছ চাষ করতে হবে। মাছের চাইতে এত নিরাপদ আমিষ আর নেই।

ধর্ষণ মামলা ছয় মাসে নিষ্পত্তিসহ হাইকোর্টের ৭ দফা নির্দেশনা

ধর্ষণ মামলা ছয় মাসে নিষ্পত্তিসহ হাইকোর্টের ৭ দফা নির্দেশনা

ধর্ষণ ও ধর্ষণ পরবর্তী হত্যা মামলা ৬ মাসের মধ্যে শেষ করা, শুনানি শুরু হলে প্রতি কার্যদিবসে টানা মামলা পরিচালনা করা, মামলায় সাক্ষীর উপস্থিতি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা বিষয়ে সাত দফা নির্দেশনা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

রিয়্যালিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে আসছেন সোহেল তাজ

রিয়্যালিটি শো ‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে আসছেন সোহেল তাজ

‘হটলাইন কমান্ডো’— নামে লাইফস্টাইল–বিষয়ক একটি রিয়্যালিটি শো নিয়ে দর্শকদের সামনে হাজির হচ্ছেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ। সামাজিক বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরা এবং সুস্বাস্থ্যের প্রতি নজর দিতে মানুষকে সচেতন করতে এই টেলিভিশন শো’টি তিন নিয়ে আসছেন বলে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন তিনি।  

জাতীয়

সিলেট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়

সিলেট সরকারি কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়

সিলেট সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাসিমা হক খানের বিরুদ্ধে অশোভন আচরণ, নানান ধরনের অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতাসহ বিধিবহির্ভূত কর্মকাণ্ডের অভিযোগ উঠেছে।

জাতীয়

ব্যাগে শিশুর কাটা মাথা, যুবককে পিটিয়ে হত্যা

ব্যাগে শিশুর কাটা মাথা, যুবককে পিটিয়ে হত্যা

নেত্রকোনা শহরের নিউ টাউন এলাকায় ব্যাগে শিশুর কাটা মাথা পেয়ে ছেলে ধরা ‘সন্দেহে’ অজ্ঞাত এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয়রা। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে শহরের নিউ টাউন পুকুরপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জাতীয়

‘হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মিন্নি’

‘হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন মিন্নি’

বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি রিফাত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত বলে স্বীকার করেছেন। বরগুনার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন এই তথ্য জানিয়েছেন।

জাতীয়

প্রাণে বেঁচে গেলেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

প্রাণে বেঁচে গেলেন প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক

লঞ্চ দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম। ঢাকা থেকে বরিশালে যাওয়ার সময় এমভি পারাবত-১১ নামে একটি লঞ্চের ধাক্কায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এমভি সুন্দরবন-১০। এ সময় লঞ্চটিতে প্রতিমন্ত্রীসহ সহস্রাধিক যাত্রী ছিলেন।

আন্তর্জাতিক

জাপানের অ্যানিমেশন স্টুডিও'র আগুনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪

জাপানের অ্যানিমেশন স্টুডিও'র আগুনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪

জাপানের কিওটো নগরীর একটি অ্যানিমেশন স্টুডিওতে হামলার পর আগুন লাগার ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪ জনে দাঁড়িয়েছে।

বিনোদন

নতুন সিনেমায় জেনিফার

নতুন সিনেমায় জেনিফার

জেনিফার লোপেজ। হলিউডে গানে তার আধিপত্য। তবে এবার গানে নয় সিনেমায় সরব এই গায়িকা। এই মুহূর্তে তার হাতে আছে নতুন সিনেমা ‘ম্যারি মি’। নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে রোমান্টিক-কমেডি কাহিনিতে অভিনয় করবেন এ পপ ডিভা।