• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

ছেলের জানাজা পড়ার ৫ মিনিট সময় পেলেন না: ভিসিকে বুয়েট শিক্ষার্থীরা

ছেলের জানাজা পড়ার ৫ মিনিট সময় পেলেন না: ভিসিকে বুয়েট শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক০৮ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:২৩পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রায় ৪০ ঘণ্টা পর শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম প্রকাশ্যে আসেন।

এ সময় ভিসি ভবনের সামনে তাকে প্রায় ৪০ মিনিট অবরুদ্ধ রেখে প্রশ্নবাণে জর্জরিত করতে থাকেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

আবরার হত্যার ৪০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও কেন তিনি হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সামনে আসেননি, কেন আবরার ফাহাদের জানাজায় উপস্থিত হননি, কেন ক্যাম্পাসে দাঙ্গা পুলিশ চড়াও হলো একের পর এক প্রশ্ন করে ভিসির কাছে উত্তর জানতে চান শিক্ষার্থীরা।

এ সময় ভিসি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বুঝানোর চেষ্টা করেন, তাদের সান্ত্বনা দেন। কাউকে বুকে জড়িয়ে, কাউকে নাম ধরে কাছে ডেকে আবার কাউকে অভিভাবক হয়ে কিছুটা শাসনের সুরে শান্ত করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন।

ভিসি বলেছেন, ‘আমি তোমাদের অভিভাবক, তোমরা আমার সন্তান। আবরারের সাথে যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটা অনাকাঙ্ক্ষিত।’

এ কথা শোনার পর শিক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। তারা ভিসিকে বলেন, ‘এটা একটা খুন, আপনাকে স্বীকার করতে হবে।’

শিক্ষার্থীদের তিনি বলেন, ‘তোমাদের সব দাবি নীতিগতভাবে মেনে নিয়েছি। তাৎক্ষণিকভাবে সব সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। তোমাদের প্রতিনিধি হিসেবে কয়েকজনের সাথে বসে আলোচনা করে সমস্যার সমাধান করতে হবে। তোমরা আলটিমেটাম তুলে নাও।’

এ সময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের একজন বলেন, ‘আপনার ছেলেকে (আবরার ফাহাদ) হত্যা করা হলো আর আপনি জানাজা পড়ার মতো পাঁচ মিনিট সময় পেলেন না কেন?’

উত্তরে ভিসি বলেন, তিনি ওই সময় সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীসহ অনেকের সাথে কথা বলায় ব্যস্ত ছিলেন।

শিক্ষার্থীদের একজন ভিসিকে বলেন, ‘স্যার, আপনার কাছে শিক্ষার্থীদের অনেক প্রশ্ন। দু-একজন প্রশ্ন করবে, কিন্তু এসব প্রশ্ন উপস্থিত সবার।’

শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘প্রতিনিধি গেলেও যা বলবেন তা মিডিয়ার সামনে করতে হবে, বলতে হবে।’

এ সময় ভিসি বলেন, ‘এভাবে সমস্যার সমাধান হবে না। আমি বলছি নীতিগতভাবে তোমাদের সব দাবি মেনে নিয়েছি। সব সমস্যার সমাধান তার একার পক্ষে করা সম্ভব নয়। সরকারের সাথে আলোচনার প্রয়োজন আছে।’

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শান্ত হলে ভিসি বলেন, ‘আমি শিক্ষামন্ত্রী ও উপমন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি। তারা দেশের বাইরে আছেন। সেখান থেকে তারা যেভাবে নির্দেশনা দিচ্ছেন আমি তা পালন করছি। আমি তোমাদের দাবিগুলো দেখেছি। এসব নিয়ে তোমাদের শিক্ষকদের সাথে কথা হয়েছে। আমি সব দাবি মেনে নিয়েছি।’

আবরার হত্যায় জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তিসহ ৭ দফা দাবিতে মঙ্গলবার সকাল থেকেই ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। হত্যার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ ও মর্মাহত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ছাত্ররাজনীতি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছেন বুয়েট শিক্ষক সমিতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান।

মঙ্গলবার বিকাল পাঁচটার মধ্যে উপাচার্য সশরীরে এসে এ বিষয়ে জবাবদিহি না করলে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তারা। এরপরই সন্ধ্যা ছয়টার পর উপাচার্য শিক্ষার্থীদের সামনে আসেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ৭ দফা দাবি:

১. খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. ৭২ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের শনাক্ত করে সবার ছাত্রত্ব আজীবন বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

৩. দায়েরকৃত মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের অধীনে স্বল্পতম সময়ে নিষ্পত্তি করতে হবে।

৪. বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কেন ৩০ ঘণ্টা অতিবাহিত হওয়ার পরও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়নি, তা তাকে সশরীরে ক্যাম্পাসে এসে আজ বিকাল ৫টার মধ্যে জবাবদিহি করতে হবে। একই সঙ্গে ডিএসডব্লিউ স্যার কেন ঘটনাস্থল থেকে পলায়ন করেছেন, এ বিষয়ে তাকে আজ বিকাল ৫টার মধ্যে সবার সামনে জবাবদিহি করতে হবে।

৫. আবাসিক হলগুলোতে র‍্যাগের নামে ও ভিন্নমতাবলম্বীদের ওপর সকল প্রকার শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনকে জড়িত সবার ছাত্রত্ব বাতিল করতে হবে। একই সঙ্গে আহসানউল্লা হল এবং সোহরাওয়ার্দী হলের আগের ঘটনাগুলোতে জড়িত সবার ছাত্রত্ব বাতিল ১১ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখ বিকাল ৫টার মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে।

৬. রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে আবাসিক হল থেকে ছাত্র উৎখাতের ব্যাপারে অজ্ঞ থাকা এবং ছাত্রদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় শেরেবাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখ বিকাল ৫টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে।

৭. মামলা চলাকালে সকল খরচ এবং আবরারের পরিবারের সকল ক্ষতিপূরণ বুয়েট প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

 

টাইমস/এসআই

চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের শতাধিক দোকান

চট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের শতাধিক দোকান

চট্টগ্রাম নগরীর নিউ মার্কেট সংলগ্ন জহুর হকার্স মার্কেট ও জালালাবাদ...

ঝিনাইদহে মাহেন্দ্রের ‍পিছনে ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী নিহত

ঝিনাইদহে মাহেন্দ্রের ‍পিছনে ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী নিহত

ঝিনাইদহ শহরের লাউদিয়া এলাকায় মাহেন্দ্রের ‍পিছনের ট্রাকের ধাক্কায় দুই নারী...

শিশু হত্যাকারীদের কঠোরতম সাজা পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

শিশু হত্যাকারীদের কঠোরতম সাজা পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আজকে যারা শিশু নির্যাতন বা শিশু...

জাতীয়

বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার আর নেই

বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার আর নেই

একুশে পদক বিজয়ী বরণ্যে চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকার রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে মারা গেছেন। এই খবর নিশ্চিত করেছেন তার ছোট ভাই শিল্পী প্রশান্ত কর্মকার। কালিদাস কর্মকারের বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। শুক্রবার দুপুরে তাকে ঢাকার বাসা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ল্যাবএইড হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে চিকিৎসকরা কালিদাসকে মৃত ঘোষণা করেন।

আন্তর্জাতিক

আফগানিস্তানে জুমার নামাজে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৬২

আফগানিস্তানে জুমার নামাজে বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৬২

আফগানিস্তানের নানগারহার প্রদেশের হাসকা মিনা জেলায় একটি মসজিদের ভেতরে বোমা বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন শতাধিক মানুষ। খবর আল জাজিরার। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় এই ঘটনা ঘটে। প্রাদেশিক সরকারের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খোগিয়ানি বলেছেন, কমপক্ষে ৬২ জন নিহত হয়েছেন। বোমা বিস্ফোরণের সময় পুরো মসজিদটি প্রকম্পিত হয়ে উঠে।

রাজনীতি

‘যুবলীগ করার বয়স নিয়ে গণভবনে আলোচনা হবে’

‘যুবলীগ করার বয়স নিয়ে গণভবনে আলোচনা হবে’

অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা ও টেন্ডারবাজির অভিযোগে সম্প্রতি যুবলীগের বেশ কয়েকজন নেতা গ্রেপ্তার হওয়ার পর যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের বিষয়টি আলোচনায় এসেছে। তার ব্যাংক হিসাব তলব করার পাশাপাশি বিদেশ যাওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। ওমর ফারুকের বর্তমান বয়স ৭১। এই বয়সে যুবলীগের দায়িত্বে থাকা নিয়ে বেশ সমালোচনাও হচ্ছে। যদিও সংগঠনটির গঠনতন্ত্রে নির্দিষ্ট কোনো বয়স সীমা বেঁধে দেয়া নেই। আগামী ২৩ নভেম্বর যুবলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। এই কাউন্সিলে সংগঠনটি পরিচালনার জন্য নতুন নেতৃত্ব আসতে পারে বলে আলোচনা আছে।

রাজনীতি

জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামেন: বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

জামায়াতকে তালাক দিয়ে রাস্তায় নামেন: বিএনপিকে জাফরুল্লাহ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য ডা. জাফরুল্লাহ বলেছেন, এখানে বিএনপির আমীর খসরু সাহেব আছেন। ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনা আপনাদেরই দায়িত্ব, জনগণ তাকিয়ে আছে। আপনাদেরকে এখন সব রকম বিভেদ ভুলে গিয়ে একত্রিত হতে হবে। জামায়াতকে একটু তালাক দিয়ে আপনারা রাস্তায় নামেন। দেখবেন বাংলাদেশ আপনাদের সাথে আছে। বাংলাদেশের গণতন্ত্রের মুক্তি আসছে, বেগম খালেদা জিয়ারও মুক্তি হবে। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে উদ্দেশ করে এই আহ্বান জানান তিনি। বাংলাদেশ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশন এই মানববন্ধনের আয়োজন করে।

জাতীয়

ফুটফুটে শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা

ফুটফুটে শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা

পঞ্চগড় শহরের কামাতপাড়া মহল্লার অশোকচন্দ্র মোদকের বাড়ির সামনে থেকে প্রায় এক মাস বয়সী একটি শিশুকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে শিশুটিকে তারা উদ্ধার করেন। তাকে পঞ্চগড় সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। কামাতপাড়া মহল্লার পেয়ারা মজুমদার বলেন, ‘প্রায় দুই বছর ধরে এক নারী তার স্বামীকে নিয়ে এ এলাকায় ভাড়া থাকতেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই নারী তার এক মাস বয়সী মেয়েকে আমাদের কাছে দিতে চেয়েছিলেন। আমরা না নেয়ায় তিনি ফিরে যান। পরে শুনি পাশের বাড়ির সামনে একই বয়সের একটি শিশু পাওয়া গেছে। আমার মনে হয়েছে এই শিশুটি ওই নারীর।’

লাইফস্টাইল

হৃদরোগে আক্রান্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে শরীরচর্চা উপকারী

হৃদরোগে আক্রান্ত বয়স্কদের ক্ষেত্রে শরীরচর্চা উপকারী

বর্তমান সময়ে হৃদরোগ একটি মারাত্মক সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে। শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই প্রতিবছর ৬,১০,০০০ জন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন, আর হার্ট অ্যাটাক হয় ৭,৩৫,০০০ লোকের। যাদের বয়স ৬৫ বছরের বেশি, তরুণদের তুলনায় তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা বেশি।