• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ আশ্বিন ১৪২৭

প্রতারণার নতুন স্টাইল, চকচকে রঙে জেলি ভরা ইলিশ

প্রতারণার নতুন স্টাইল, চকচকে রঙে জেলি ভরা ইলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক১১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪:২১পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বাঙালীর ঐতিহ্যের সঙ্গে ইলিশের একটা দারুণ যোগাযোগ রয়েছে। কিন্তু এই ভরা মৌসুমেও ইলিশ কিনতে গিয়ে প্রতারিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। ওজনে কারচুপি, ইলিশের নামে অন্য মাছ বিক্রিসহ বিষাক্ত দ্রবণ মিশ্রিত ইলিশও বিক্রি হচ্ছে বাজারগুলোতে। এতে করে স্বাস্থ্যঝুঁকি যেমন বাড়ছে, তেমনি ইলিশের স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

এখন ইলিশের মৌসুম। রাজধানীসহ দেশের সব জেলা শহর ও গ্রামগঞ্জের বাজারেও এখন ইলিশে সয়লাব। স্থায়ী বাজারের পাশাপাশি ইলিশের মৌসুমে ভ্রাম্যমাণ ইলিশ মাছের বাজারও চোখে পড়ে নিয়মিত। এবছরও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে ইলিশের সবচেয়ে বেশি চাহিদা রাজধানীতে।

মেগা এ সিটিতে ছোট বড় মিলিয়ে কয়েক হাজার বাজার রয়েছে। এখন এসব বাজারে ঝুড়িতে ঝুড়িতে ইলিশের পসরা সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। মাছের ঝুড়ির ঠিক ওপরে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে এনার্জি সেভিং বাল্ব।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, মাছের ঝুড়ির ওপর এনার্জি বাল্ব ঝুলিয়ে রাখার কারণে মাছ চকচকে দেখায়। এতে ক্রেতারা সহজেই আকৃষ্ট হন। অনেক সময় পঁচা ও নরম মাছও চকচকে দেখে কিনে নিয়ে প্রতারিত হন ক্রেতা। কারণ এনার্জি বাল্ব মাছের খুব কাছাকাছি জালিয়ে রাখার কারণে পঁচা মাছও খুব চকচকে দেখায়।

রাজধানীর বেশ কয়েকটি মাছের বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, সব ইলিশ মাছের ঝুঁড়ির ওপর এনার্জি বাল্ব জ্বলছে। আবার অনেক মাছের গায়ে ক্রেতাকে হাত দিতেও দেয়া হচ্ছে না। শুধু দূর থেকে চকচকে রং দেখে ইলিশ কিনতে বাধ্য হচ্ছেন ক্রেতা সাধারণ। উজ্জ্বল আলোর ঝলকানিতে অনেক সময় ক্রেতারা ভিমড়ি খেয়ে পঁচা মাছ কিনে ঠকে যান। এই প্রতারণা এখন সব বাজারে গেলেই দেখা যায়।

এছাড়া মাছ পরিমাপের স্কেলেও সুক্ষ্ম প্রতারণার কৌশল নিয়েছে ব্যবসায়ীরা। অধিকাংশ বাজারেই দেখা গেছে, স্কেলেও ওপরের প্লেটটি পাতলা অয়েল পেপারে মোড়ানো। এই পেপারের একটা অংশে হালকা চাপ দিলেই স্কেলের ওপরের প্লেটে টান লাগে। এতে ওজনের পরিমাণ বেশি দেখায়। ফলে মাছের বাজারে ওজনেও ঠকছেন ক্রেতারা।

তবে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ব্যাপার হলো, বেশি দামে ইলিশ বিক্রির জন্য মাছের শরীরে ক্ষতিকর জেলি ব্যবহার করা হচ্ছে। আকারে বড় ইলিশের শরীরে জেলি লাগানোয় তা বেশি উজ্জ্বল দেখাচ্ছে। আর কৃত্রিম এ রং দেখে ক্রেতারা সহজেই প্রতারিত হচ্ছেন।

জানা গেছে, ইলিশের ভরা মৌসুমে বিক্রি বাড়লেও মাছের উৎপাদন বেশি থাকে। যেকারণে মাছ সংরক্ষণ করা হয়। আর এ জন্য ক্ষতিকর জেলি ইলিশের শরীরে ঢুকিয়ে মাছকে বেশি চকচকে, ওজনের ভারী, শক্ত ও সতেজ করে রাখা হয়। কিন্তু জেলি মানুষের শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে অধিকাংশ বিক্রেতা বলেন, মাছের ঝুড়ির ওপর এনার্জি বাল্ব দেয়ায় ক্রেতাদের মাছ দেখতে সুবিধা হয়। ভালো ভাবে যাচাই করে ক্রেতা যেন মাছ কিনতে পারে, সেজন্যই বাল্ব জালানো হয়।

এব্যাপারে কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি গোলাম রহমান গণমাধ্যমকে বলেন, সব ব্যবসায়ীই অধিক মুনাফা করতে চায়। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু অধিক মুনাফার জন্য মানুষের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেয়ার অধিকার তাদের নেই। এ ধরণের উপায় অবলম্বন করা অনৈতিক। এ ক্ষেত্রে সবাইকে আরও সচেতন থাকতে হবে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ গণমাধ্যমকে বলেন, ব্যবসায়ীরা এখন মাছে ফরমালিন দেন না। মাছের আইসিং (বরফীকরণ) ও পরিবহনব্যবস্থা উন্নত হওয়ায় এমনিতেই মাছ ভালো থাকে। তবে মাছের শরীরে জেলি ঢুকানো হয়। বাজার থেকে প্রায়ই আমরা জেলি মেশানো চিংড়ি পাচ্ছি।

চিকিৎসকরা বলছেন, মাছে ব্যবহৃত এই রাসায়নিক জেলি জীবনবিনাশী ও মারাত্মক ক্ষতিকর। এগুলো মানুষের খাদ্যনালি, পরিপাকতন্ত্র এমনকি কিডনিও নষ্ট করে দিতে পারে।

এ ব্যাপারে র‌্যাবের নির্বাহী হাকিম সরওয়ার আলম গণমাধ্যমকে বলেন, মাছে জেলি ঢুকানো বা এধরণের অপরাধের জন্য নির্দিষ্ট শাস্তি রয়েছে। গত দুই সপ্তাহে কারওয়ান বাজার ও যাত্রাবাড়ী আড়তে অভিযান চালিয়ে আমরা বিপুল পরিমাণ জেলি মেশানো চিংড়ি পেয়েছি। এসব অপরাধের নেপথ্য উৎস আমরা বের করার চেষ্টা করছি।

 

টাইমস/এসএন

অটো নয়, মূল্যায়নের মাধ্যমে অষ্টম থেকে নবম শ্রেণিতে প্রমোশন

অটো নয়, মূল্যায়নের মাধ্যমে অষ্টম থেকে নবম শ্রেণিতে প্রমোশন

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এবছরের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা বাতিল হলেও শিক্ষার্থীদের নবম শ্রেণিতে

এবার কক্সবাজারের ৩৪ পুলিশ পরিদর্শককে একযোগে বদলি

এবার কক্সবাজারের ৩৪ পুলিশ পরিদর্শককে একযোগে বদলি

পুলিশের কক্সবাজার জেলার ৩৪ জন ইন্সপেক্টরকে (পরিদর্শক) দেশের বিভিন্ন জেলা

ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ

ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ

ক্রেডিট কার্ডের ওপর সুদের হার ২০ শতাংশের বেশি নির্ধারণ করা

জাতীয়

বেসরকারি হাসপাতালগুলো চিকিৎসার নামে ‘ডাকাতের’ মতো টাকা নিচ্ছে: মেয়র আতিক

বেসরকারি হাসপাতালগুলো চিকিৎসার নামে ‘ডাকাতের’ মতো টাকা নিচ্ছে: মেয়র আতিক

চিকিৎসা ও পরীক্ষার নামে বেসরকারি হাসপাতালগুলো মানুষের কাছ থেকে ‘ডাকাতের মত’ টাকা নিচ্ছে মন্তব্য করে ক্ষোভ ঝেরেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। হাসপাতালগুলো বেশি টাকা নিলেও নিজেদের চিকিৎসাবর্জ্য ঠিকমত ব্যবস্থাপনা করছে না জানিয়ে শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে সমন্বিত অভিযান শুরুর তাগিদ দেন তিনি।

স্বাস্থ্য

ঘরোয়া উপায়ে কফ উপশম করবেন কীভাবে?

ঘরোয়া উপায়ে কফ উপশম করবেন কীভাবে?

আপনি চাইলেই সে অর্থে সর্দি জ্বর বা ফ্লু চিকিৎসা করতে পারবেন না, তবে এসব রোগের উপসর্গ হিসেবে দেখা দেয়া কফ, কাশি এবং গলা ব্যথা উপশম করতে পারবেন।

জাতীয়

করোনায় আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪০

করোনায় আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪০

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫ হাজার ৭২ জনে। একই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৫৪০ জন। ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হল ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৩৮৪ জন।

জাতীয়

মসজিদে বিস্ফোরণ: ৩৫ পরিবারে ৫ লাখ টাকা করে অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

মসজিদে বিস্ফোরণ: ৩৫ পরিবারে ৫ লাখ টাকা করে অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার তল্লায় মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত এবং আহত ৩৫ পরিবারের প্রতিটি পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা করে মোট ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকার আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজনীতি

চট্টগ্রামে নাশকতার আট মামলায় বিএনপির ১৬ নেতাকর্মী কারাগারে

চট্টগ্রামে নাশকতার আট মামলায় বিএনপির ১৬ নেতাকর্মী কারাগারে

২০১৮ সালের ৩০ জানুয়ারির জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ থানায় নাশকতার অভিযোগে করা নাশকতার আট মামলায় বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ১৬ নেতাকর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। এছাড়া বয়স ও শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় ১০ জনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

স্বাস্থ্য

কফি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিষয়ে যা জানা আবশ্যক

কফি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিষয়ে যা জানা আবশ্যক

কফি লিভারের জন্যও অনেক উপকারী। কারণ কফি পানকারীদের লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি অনেক কম। এটি লিভার, হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং কোলোরেক্টাল ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে। নিয়মিত কফি পান আপনার অ্যালঝেইমার এবং পারকিন্সন রোগের ঝুঁকি ৩২-৬৫% কমিয়ে দেয়।