• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী: কাদের

ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৫০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

কেন্দ্রীয় দুই শীর্ষ নেতার বিতর্কিত কর্মকাণ্ড ও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা নানান অভিযোগে ক্ষুব্ধ হয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ভেঙে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন বলে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে  তা ঠিক নয় বলে জানালেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এ ব্যাপারে আলোচনা হলেও কোনো সিদ্ধান্ত দেননি প্রধানমন্ত্রী।

রোববার সচিবালয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারকে সৌজন্য সাক্ষাৎ দেয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, 'গতকালকে আমাদের যে মিটিং ছিল, এটা পার্লামেন্টারি বোর্ড এবং স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা ছিল। রংপুরের বাই ইলেকশন, ২২টি ইউনিয়ন পরিষদ, তিনটি পৌরসভা, সাতটি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হচ্ছে অক্টোবরে মাসে। এজন্যই আমরা বসেছিলাম।

মনোনয়নে বোর্ডের মিটিংয়ে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি জানিয়ে কাদের বলেন, 'কথা প্রসঙ্গে হয়তো কথা আসে। এটা নিয়ে সিদ্ধান্ত আকারে কোনো কথা হয়নি। কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হলে সেটার ফোরাম ওটা (বৈঠক) ছিল না। ওখানে ইনসাইডে আমরা অনেক কথাই বলতে পারি, অনেক আলোচনাই করতে পারি। এখানে কোনো কোনো প্রসঙ্গে ক্ষোভের প্রকাশও হতে পারে বা কারও কারও রিঅ্যাকশনও আসতে পারে। কিন্তু অ্যাজ এ জেনারেল সেক্রেটারি অব দ্য পার্টি আমার এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করা এ মুহূর্তে ঠিক হবে না। যতক্ষণ পর্যন্ত না এটা ইমপ্লিমেন্টশন প্রসেসে যায়। এখানে ক্ষোভের প্রকাশ ঘটতে পারে, প্রতিক্রিয়া হতে পারে কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত আকারে কিছু হয়নি।'

বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর, শনিবার আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে উপস্থিত নেতাদের সমালোচনার একপর্যায়ে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দিতে বলেন শেখ হাসিনা। সে সময় ছাত্রলীগের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে বিরক্তিও প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় দুই নেতার বিরুদ্ধে সংগঠনের ভেতর-বাইরে প্রচুর অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি সিলেটে সাংগঠনিক সফরে গিয়েছিলেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন। ফেরার পথে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অসংখ্য নেতাকর্মী প্রবেশ করেন তার সঙ্গে। চলে যান একেবারে বিমানের টারমার্ক পর্যন্ত। সব নিরাপত্তা বলয় উপেক্ষা করে সেলফি তোলার হুড়োহুড়িতে ব্যস্ত দেখা যায় তাদের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমেও প্রকাশ এই ছবি।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সম্পর্কে নানা অভিযোগ তোলেন উপস্থিত নেতারা। এসব অভিযোগের মধ্যে রয়েছে বিতর্কিত ব্যক্তিদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে জায়গা দেয়া, দুপুরের আগে ঘুম থেকে না ওঠা, অনৈতিক আর্থিক লেনদেন ইত্যাদি।

এছাড়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলনে গিয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের জন্য বেলা ১১টা থেকে তিনটা পর্যন্ত অপেক্ষা করা, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ছাত্রলীগের অনুষ্ঠানে পৌঁছানোর পর সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের পৌঁছানোসহ নানা বিষয় আলোচিত হয় বলে জানায় গণমাধ্যম। পরে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হয়ে কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ কিনা এমন প্রশ্নে কাদের বলেন, 'কিছু কিছু ব্যাপারে তো থাকতেই পারে। যেমন- আমাদের ইলেকশনে যারা বিদ্রোহী ছিল, আমাদের মন্ত্রী-এমপিদের মধ্যে, নেতাদের মধ্যে- এ সব ব্যাপারে তো ক্ষোভ প্রকাশ হয়। কাজেই ছাত্রলীগেরও বিচ্ছিন্ন-বিক্ষিপ্ত কিছু কিছু ব্যাপার আছে, সেগুলো নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কনসার্ন থাকতেই পারেন, এটা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু এখানে কোনো স্পেসিফিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে আমি জানি না, কারণ ওই ফোরামে কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনার বিষয় আসেনি।'

প্রধানমন্ত্রী নির্দেশের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আমার মনে হয় এ ধরনের কিছু হলে আপনারা তো দেখবেনই। এ ধরনের কিছু হতে গেলে তো এটা পাবলিক স্টেটমেন্ট। ডিসিশনটা জানা যাবে, এটা তো ওপেন সিক্রেট হয়ে যাবে, তখন সিক্রেট থাকবে না।'

প্রধানমন্ত্রী মিটিংয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে একথা বলেছেন কিনা জানতে চাইলে কাদের বলেন, 'যতক্ষণ এটা সিদ্ধান্ত আকারে না আসছে ততক্ষণ পর্যন্ত এর সত্যতা আমি স্বীকার করব না।'

গত বছরের ৩১ জুলাই ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেন রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও গোলাম রাব্বানী। চলতি বছরের ১৩ মে ঘোষণা করা হয় পূর্ণাঙ্গ কমিটি।

 

টাইমস/এসআই

সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় যাচ্ছে না বুয়েট

সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় যাচ্ছে না বুয়েট

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে না বাংলাদেশ

গ্রামীণফোনকে এক হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ   

গ্রামীণফোনকে এক হাজার কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ  

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থার (বিটিআরসি) পাওনা এক হাজার কোটি টাকা

এক মাসেই তৈরি হবে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক

এক মাসেই তৈরি হবে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক

এক মাসের মধ্যেই করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরি করা সম্ভব বলে দাবি

খেলাধুলা

রোনাল্ডোর প্রেমিকার হাত খরচ ৮৭ লাখ টাকা

রোনাল্ডোর প্রেমিকার হাত খরচ ৮৭ লাখ টাকা

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো তার প্রেমিকা জর্জিনা রদ্রিগেজের হাত খরচ মেটানোর জন্য প্রতি মাসে ৮৭ লাখ টাকা ব্যয় করেন। খবরটি পড়ে আশ্চর্য হবেন না জানি। কিন্তু একটু ভেবেই দেখুন না, বিয়ে না করেই প্রেমিকার জন্য এরকম কাড়ি কাড়ি টাকা কয়জনে বিলোতে জানে?

জাতীয়

ভালুকায় ট্রাকের পেছনে পিকআপের ধাক্কা, চালকসহ নিহত ২

ভালুকায় ট্রাকের পেছনে পিকআপের ধাক্কা, চালকসহ নিহত ২

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় বালুবোঝাই ট্রাকের পেছনে মুরগিবাহী ট্রাকের ধাক্কায় পিকআপের চালকসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও একজন।

জাতীয়

ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ ‘ছাল তুলে নাও’

ব্যতিক্রমী প্রতিবাদ ‘ছাল তুলে নাও’

ওরা ট্যাক্স ফাকি দেয়। কেউ লিখেছেন, ধুমপান ছাড়ুন জীবন বাচান। আবার কেউ লিখেছেন, সিগারেট রক্তে বিষ মেশায়। সিগারেট তৈরির কোম্পানীগুলো আইন মানে না। ধুমপায়ী আইন মানে না। ধুমপান মানে আত্মহত্যা। সিগারেটের মুল প্যাকেটের আবরণ তুলে সাদা অংশে এরকম নানা প্রতিবাদি কথা লিখছেন সচেতন মানুষগুলো।

জাতীয়

সিলেটে আড়াই মণ ওজনের বাঘাইড় মাছ, দাম দুই লাখ

সিলেটে আড়াই মণ ওজনের বাঘাইড় মাছ, দাম দুই লাখ

সিলেটের লালবাজার মৎস্য আড়তে বিক্রির জন্য ১০০ কেজি (আড়াই মণ) ওজনের একটি বাঘাইড় মাছ নিয়ে এসেছেন এক মাছ ব্যবসায়ী। যার দাম হাঁকানো হয়েছে দুই লাখ টাকা।

জাতীয়

বগুড়ায় প্রকাশ্যে স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়ায় প্রকাশ্যে স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের এক কর্মীকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তার নাম আপেল মাহমুদ (৩০)। এসময় আপেলের বড় ভাই আল মামুনকে (৪০) কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য

হজম ক্ষমতা বাড়ায় গরম মশলা

হজম ক্ষমতা বাড়ায় গরম মশলা

গরম মশলা আমাদের অতি পরিচিত। মাংস রান্না থেকে শুরু করে বিভিন্ন রান্নায় এর বাহারি ব্যবহার রয়েছে। গরম মশলা খাবারের স্বাদ বাড়ায়, সে কথা সবার জানা। তবে, এর স্বাস্থ্যকর অনেক গুনের কথাই আমরা হয়তো জানি না। আবার অনেকে ভেবে থাকেন এই মশলা আমাদের পেটের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। বাস্তবতা হলো- গরম মশলায় থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হজমজনিত সমস্যা নিরাময়ের পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।