• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬

ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী: কাদের

ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৩:৫০পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

কেন্দ্রীয় দুই শীর্ষ নেতার বিতর্কিত কর্মকাণ্ড ও তাদের বিরুদ্ধে ওঠা নানান অভিযোগে ক্ষুব্ধ হয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ভেঙে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন বলে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে  তা ঠিক নয় বলে জানালেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এ ব্যাপারে আলোচনা হলেও কোনো সিদ্ধান্ত দেননি প্রধানমন্ত্রী।

রোববার সচিবালয়ে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রবার্ট মিলারকে সৌজন্য সাক্ষাৎ দেয়ার পর সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, 'গতকালকে আমাদের যে মিটিং ছিল, এটা পার্লামেন্টারি বোর্ড এবং স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা ছিল। রংপুরের বাই ইলেকশন, ২২টি ইউনিয়ন পরিষদ, তিনটি পৌরসভা, সাতটি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন হচ্ছে অক্টোবরে মাসে। এজন্যই আমরা বসেছিলাম।

মনোনয়নে বোর্ডের মিটিংয়ে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেয়ার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি জানিয়ে কাদের বলেন, 'কথা প্রসঙ্গে হয়তো কথা আসে। এটা নিয়ে সিদ্ধান্ত আকারে কোনো কথা হয়নি। কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হলে সেটার ফোরাম ওটা (বৈঠক) ছিল না। ওখানে ইনসাইডে আমরা অনেক কথাই বলতে পারি, অনেক আলোচনাই করতে পারি। এখানে কোনো কোনো প্রসঙ্গে ক্ষোভের প্রকাশও হতে পারে বা কারও কারও রিঅ্যাকশনও আসতে পারে। কিন্তু অ্যাজ এ জেনারেল সেক্রেটারি অব দ্য পার্টি আমার এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করা এ মুহূর্তে ঠিক হবে না। যতক্ষণ পর্যন্ত না এটা ইমপ্লিমেন্টশন প্রসেসে যায়। এখানে ক্ষোভের প্রকাশ ঘটতে পারে, প্রতিক্রিয়া হতে পারে কিন্তু কোনো সিদ্ধান্ত আকারে কিছু হয়নি।'

বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর, শনিবার আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে উপস্থিত নেতাদের সমালোচনার একপর্যায়ে ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দিতে বলেন শেখ হাসিনা। সে সময় ছাত্রলীগের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে বিরক্তিও প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় দুই নেতার বিরুদ্ধে সংগঠনের ভেতর-বাইরে প্রচুর অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি সিলেটে সাংগঠনিক সফরে গিয়েছিলেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক শোভন। ফেরার পথে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অসংখ্য নেতাকর্মী প্রবেশ করেন তার সঙ্গে। চলে যান একেবারে বিমানের টারমার্ক পর্যন্ত। সব নিরাপত্তা বলয় উপেক্ষা করে সেলফি তোলার হুড়োহুড়িতে ব্যস্ত দেখা যায় তাদের। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমেও প্রকাশ এই ছবি।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সম্পর্কে নানা অভিযোগ তোলেন উপস্থিত নেতারা। এসব অভিযোগের মধ্যে রয়েছে বিতর্কিত ব্যক্তিদের কেন্দ্রীয় কমিটিতে জায়গা দেয়া, দুপুরের আগে ঘুম থেকে না ওঠা, অনৈতিক আর্থিক লেনদেন ইত্যাদি।

এছাড়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলনে গিয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের জন্য বেলা ১১টা থেকে তিনটা পর্যন্ত অপেক্ষা করা, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ছাত্রলীগের অনুষ্ঠানে পৌঁছানোর পর সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের পৌঁছানোসহ নানা বিষয় আলোচিত হয় বলে জানায় গণমাধ্যম। পরে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ হয়ে কমিটি ভেঙে দেয়ার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ক্ষুব্ধ কিনা এমন প্রশ্নে কাদের বলেন, 'কিছু কিছু ব্যাপারে তো থাকতেই পারে। যেমন- আমাদের ইলেকশনে যারা বিদ্রোহী ছিল, আমাদের মন্ত্রী-এমপিদের মধ্যে, নেতাদের মধ্যে- এ সব ব্যাপারে তো ক্ষোভ প্রকাশ হয়। কাজেই ছাত্রলীগেরও বিচ্ছিন্ন-বিক্ষিপ্ত কিছু কিছু ব্যাপার আছে, সেগুলো নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কনসার্ন থাকতেই পারেন, এটা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু এখানে কোনো স্পেসিফিক সিদ্ধান্তের বিষয়ে আমি জানি না, কারণ ওই ফোরামে কোনো সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনার বিষয় আসেনি।'

প্রধানমন্ত্রী নির্দেশের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আমার মনে হয় এ ধরনের কিছু হলে আপনারা তো দেখবেনই। এ ধরনের কিছু হতে গেলে তো এটা পাবলিক স্টেটমেন্ট। ডিসিশনটা জানা যাবে, এটা তো ওপেন সিক্রেট হয়ে যাবে, তখন সিক্রেট থাকবে না।'

প্রধানমন্ত্রী মিটিংয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে একথা বলেছেন কিনা জানতে চাইলে কাদের বলেন, 'যতক্ষণ এটা সিদ্ধান্ত আকারে না আসছে ততক্ষণ পর্যন্ত এর সত্যতা আমি স্বীকার করব না।'

গত বছরের ৩১ জুলাই ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেন রেজওয়ানুল হক চৌধুরী ও গোলাম রাব্বানী। চলতি বছরের ১৩ মে ঘোষণা করা হয় পূর্ণাঙ্গ কমিটি।

 

টাইমস/এসআই

রাজধানীতে চলাফেরায় নতুন যে নির্দেশনা দিল পুলিশ

রাজধানীতে চলাফেরায় নতুন যে নির্দেশনা দিল পুলিশ

জনসাধারনের অবাধ চলাচলে পুলিশের অতিরিক্ত কঠোর আচরণের সমালোচনার কারণেই নতুন

আক্রান্ত ৬ লাখ : মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়াল

আক্রান্ত ৬ লাখ : মৃতের সংখ্যা ২৭ হাজার ছাড়াল

মহামারী করোনাভাইরাস। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের উন্মাদ থাবায় প্রতিদিন ঝরে পড়ছে

এলাকাবাসীর বিক্ষোভে করোনা হাসপাতালের নির্মাণকাজ বন্ধ

এলাকাবাসীর বিক্ষোভে করোনা হাসপাতালের নির্মাণকাজ বন্ধ

করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় রাজধানী ঢাকার তেজগাঁও শিল্পাঞ্চলে আকিজ গ্রুপের

জাতীয়

যে পাঁচ পেশাজীবীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন মাশরাফি

যে পাঁচ পেশাজীবীকে কৃতজ্ঞতা জানালেন মাশরাফি

মাশরাফির দৃষ্টিতে এই নাজুক পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকি নিয়ে মানুষের জন কাজ করছেন- চিকিৎসক, নার্স, আইনশৃংখলাবাহিনী, সেচ্ছাসেবক ও গণমাধ্যমকর্মীরা। আর তাই এই পাঁচ শ্রেণির পেশাজীবীদের তিনি হ্যাড খোলা (টুপি) কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

জাতীয়

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনায় আক্রান্ত

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনায় আক্রান্ত

গাইবান্ধায় আরও দুই নারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এই দুই নারী যুক্তরাষ্ট্র ফেরত দুই প্রবাসীর সংস্পর্শে ছিলেন বলে জানা গেছে। এঘটনার পরে সাদুল্যাপুরে ১৫টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।

জাতীয়

সিরাজগঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপ: কারাগারে স্বামী

সিরাজগঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপ: কারাগারে স্বামী

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে স্ত্রীর গায়ে এসিড নিক্ষেপের মামলায় স্বামীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গুরুতর দগ্ধ গৃহবধূকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার এ ঘটনা ঘটে।

জাতীয়

মনিরামপুরের সেই এসি ল্যান্ডকে প্রত্যাহার

মনিরামপুরের সেই এসি ল্যান্ডকে প্রত্যাহার

মাস্ক না পড়ায় বৃদ্ধদের কান ধরে ওঠবস করানো যশোরের মনিরামপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

জাতীয়

সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে প্রাণ গেল পাঁচজনের

সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে প্রাণ গেল পাঁচজনের

গণপরিবহন না থাকায় সিমেন্টবোঝাই ট্রাকে করে বাড়ি ফিরতে গিয়ে প্রাণ গেছে পাঁচজনের। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ১১ জন। শনিবার সকাল ছয়টার দিকে টাঙ্গাইল শহরের বাইপাস সড়কে সিমেন্টবোঝাই ট্রাক উল্টে বস্তার নিচে চাপা পড়ে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। হাইওয়ে পুলিশের এলেঙ্গা ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. কামাল হোসেন দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন

বিনোদন

করোনার ভয়ে যেভাবে কাটছে সজলের সময়

করোনার ভয়ে যেভাবে কাটছে সজলের সময়

ছোট ও বড় পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা আব্দুন নূর সজল। হোম কোয়ারেন্টাইনে কাটছে তার সময়। করোনার ভয়ে বাসা থেকে বেরই হচ্ছেন না তিনি।