• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ২৫ চৈত্র ১৪২৬

সৌদি-রাশিয়ার তেলযুদ্ধ, করোনাভাইরাস ও উন্নয়নশীল দেশের পরিণতি

সৌদি-রাশিয়ার তেলযুদ্ধ, করোনাভাইরাস ও উন্নয়নশীল দেশের পরিণতি

প্রতীকী ছবি

তারিক হাসান২১ মার্চ ২০২০, ০৭:৫৫পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

বর্তমান সময়ে পৃথিবীতে যে দুটি বিষয় মানবজাতির উপর প্রভাব ফেলছে তার একটি হলো করোনাভাইরাস (covid19) যা সরাসরি মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে। আরেকটি হলো সৌদি-রাশিয়ার তেলযুদ্ধ যা বিশ্ব রাজনীতি ও অর্থনীতিকে প্রভাবিত করছে এবং এর প্রভাব ধীরে ধীরে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোতেও এসে পড়ছে।

করোনাভাইরাসের কারণে পৃথিবী জুড়ে এই পর্যন্ত মারা গেছে ১১ হাজারের ওপর মানুষ, অন্যদিকে বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের মূল্য গত এক মাসে প্রায় ৫০ শতাংশ কমে ২৬ ডলারে এসে পৌঁছেছে। করোনার ভয়াবহতার কারণে অর্থনৈতিক মন্দার বিষয়টি যদিও এই মুহূর্তে মিডিয়ার গুরুত্ব পায়নি তবে অচিরেই এটি নীতিনির্ধারকদের আরেকবার মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

সৌদি আরব ও রাশিয়ার মধ্যে সম্প্রতি তেল উৎপাদন নিয়ে মতানৈক্য দেখা দেয়ায় মাত্র কয়েকদিনের মধ্যেই অপরিশোধিত তেলের দাম কমে ২৬ ডলারে এসে ঠেকেছে। রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যে তেল উৎপাদনের যে চুক্তি রয়েছে- জুন, ২০২০ পর্যন্ত সৌদি আরব চেয়েছিল মন্থর বিশ্ব অর্থনীতির প্রেক্ষাপটে সেই চুক্তি থেকে সরে এসে তেলের উৎপাদন আরো কমাতে। কিন্তু রাশিয়ার ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্ট পুতিন এসে সায় না দেয়ায় পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে সৌদি আরব উল্টো তেল উৎপাদন আরো বাড়িয়ে দেয়ায় অপরিশোধিত তেলের দাম কমে তলানিতে এসে ঠেকছে। ২০০৩ সালের পর অপরিশোধিত তেলের দাম এত কম আর কখনোই ছিলনা।

তেলের উৎপাদন কমানোর সৌদি প্রস্তাবে রাশিয়ার আপত্তির পেছনে রয়েছে বেশ লম্বা যুক্তি আর দীর্ঘ প্রস্তুতি। রাশিয়া চেয়েছে আমেরিকার শেল ওয়েল (shale oil) ইন্ডাস্ট্রিকে শায়েস্তা করে মার্কিন রিপাবলিকান নেতাদের কড়া বার্তা দিতে। রাশিয়ার এই ক্ষোভের পেছনে রয়েছে রাশিয়ার উপর আরোপিত কতিপয় মার্কিন অবরোধ। আবার একই ঢিলে সৌদির ক্ষমতাধর তরুণ প্রিন্স সালমানকে বাগে আনাও রাশিয়ার আরেক কৌশল। সৌদি-আমেরিকান জোটের কারণে সিরিয়ায় রাশিয়াকে গলদঘর্ম হতে হচ্ছে, লিবিয়াতেও বেগ পেতে হচ্ছে।

রাশিয়া হিসেব কষে দেখেছে তেলের দাম ২৫ ডলারে নামলেও তাদের যে ৫৫০ বিলিয়ন ডলারের সোভেগইন অয়েলথ ফান্ড (sovereign wealth fund) আছে তা দিয়ে আগামী পাঁচ বছরের বেশী টেক্কা দেয়া যাবে। আবার অন্য দিকে সিরিয়া, ভেনেজুয়েলার তেলের ভাণ্ডারও রাশিয়ার করতলে এসে গেছে ট্রাম্পের আগ্রাসী নীতির কারণে। এমন পরিস্থিতিতে অদূরদর্শী প্রিন্স সালমানের সৌদি আরবও সহজে হার মেনে না নিয়ে রাশিয়াকে শায়েস্তা করার জন্য তেলের উৎপাদন বাড়িয়ে দিয়েছে, যার ফলে তেলের দাম কমেই চলেছে। সৌদি রাজপরিবারের সদস্যরা যদিও জোর গলায় বলছেন তেলের দাম ২০ ডলারে নামলেও তাদের কোন সমস্যা হবেনা তবে এটি আদতে কথার কথা কিনা বলা মুশকিল। সৌদিকে বাঁচাতে তাদের একমাত্র ভরসা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য ইতোমধ্যেই এগিয়ে এসেছেন। পুতিনকে চাপে ফেলতে রাশিয়ার উপর নতুন করে অবরোধ আরোপের হুশিয়ারি দিয়েছেন ট্রাম্প।

সৌদিআরব তথা মধ্যপ্রাচ্যের অধিকাংশ দেশের অর্থনীতি বহু বছর ধরেই তেল নির্ভর। এখানে কাজ করে বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোর লাখ লাখ জনশক্তি। তেলের দাম কমে গেলে নিশ্চিতভাবেই বাংলাদেশের রেমিটেন্সে আঘাত আসবে, ফলশ্রুতিতে দেশের অর্থনীতি হোঁচট যে খাবে তার প্রমাণ ইতোমধ্যেই পাওয়া যাচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের দেয়া তথ্যানুযায়ী ডিসেম্বর, ২০১৯ সালে রেমিটেন্সের পরিমাণ ছিল ১৪৩ বিলিয়ন টাকা, যা ১৪ শতাংশ কমে ফেব্রুয়ারি ২০২০ সালে এসে দাঁড়িয়েছে ১২৩ বিলিয়ন টাকা। নিশ্চিতভাবেই বলা যায় আগামী মাসগুলিতে এর ব্যাপক প্রভাব গ্রামীণ অর্থনীতিতে দেখা দিবে।

করোনাভাইরাসের কারণে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে ইউরোপের উন্নত দেশগুলি। বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের আমদানিকারক মূলত ইউরোপের এই উন্নত দেশগুলো। অন্যদিকে বিজিএমইএ’র দেয়া তথ্যানুযায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট রপ্তানি আয়ের ৮৪.২১ শতাংশ এসেছিল পোশাক শিল্প থেকে যার পরিমাণ ছিল ৩৪.১৩ বিলিয়ন ডলার। ২০১৯-২০ অর্থ বছরে এসে এমনিতেই আগের চেয়ে ক্রয়াদেশ কমেছে পোশাক শিল্পে। ফলে করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশের পোশাক শিল্প নতুন করে ক্রয়াদেশ হারালে তা নিশ্চিতভাবেই বৃহৎ পরিসরে দেশের অর্থনীতিতে প্রভাব ফেলবে।

উন্নয়নশীল দেশগুলোতে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার কারণে এমনিতেই মুদ্রাপাচার হয়ে যায় প্রভাবশালীদের হাত ধরে যা অর্থনীতিকে দুর্বল করে ফেলে।

এমন বিশ্ব পরিস্থিতিতে উপরন্তু উন্নয়নশীল দেশগুলোর জনশক্তি আর পোশাক শিল্পখাত ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা কাটিয়ে উঠা সত্যিই কঠিন হবে, তদুপরি সমাজে স্থিতিশীলতা বিনষ্ট হওয়ারও আশংকা রয়েছে।

আসন্ন এমন পরিস্থিতিতে যদি কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ এসে হাজির হয় তবে তা ফুড সিকিউরিটিতেও আঘাত হানবে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য মানুষের নাগালের বাইরে চলে গেলে যে পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে তার জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি থাকা উচিত সকলের।

 

লেখক: সিনিয়র সহকারী সচিব, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়।

 

 

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৫৪ জন শনাক্ত, তিনজনের মৃত্যু

করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৫৪ জন শনাক্ত, তিনজনের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫৪ জন রোগী শনাক্ত

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন খুনি মাজেদের

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন খুনি মাজেদের

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যা মামলার ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত

করোনায় আক্রান্ত অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তা, প্রিন্সিপাল শাখা লকডাউন

করোনায় আক্রান্ত অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তা, প্রিন্সিপাল শাখা লকডাউন

অগ্রণী ব্যাংকের এক কর্মকর্তা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় রাজধানীর মতিঝিলে ব্যাংকটির

জাতীয়

আইজিপি হলেন বেনজীর: র‌্যাবের ডিজি  মামুন

আইজিপি হলেন বেনজীর: র‌্যাবের ডিজি মামুন

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে এবার পুলিশের নতুন মহাপরিদর্শক (আইজিপি) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ড. বেনজীর আহমেদ। সেই সঙ্গে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন।

আন্তর্জাতিক

বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৮১ হাজার ছাড়াল: করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই

বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৮১ হাজার ছাড়াল: করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই

মহামারী করোনাভাইরাসের প্রকোপে মৃতের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। বিশ্বব্যাপী প্রত্যেক ২৪ ঘন্টায় লাশের সারিতে যোগ হচ্ছে গড়ে ৫ হাজার মানুষের নিথর দেহ। বুধবার পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ৮১ হাজার ছাড়িয়েছে।

জাতীয়

করোনায় কারখানা বন্ধ হলে শ্রমিক ছাটাই চলবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

করোনায় কারখানা বন্ধ হলে শ্রমিক ছাটাই চলবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী বলেছেন, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে কারখানা বন্ধ হলে কোনো শ্রমিককে চাকরিচ্যুত বা ছাটাই করা যাবে না। এব্যাপারে আরও মানবিক হওয়ার জন্য কারখানা মালিকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

আন্তর্জাতিক

করোনা  : সেবনযোগ্য ওষুধ তৈরি করছে মার্কিন গবেষকরা

করোনা : সেবনযোগ্য ওষুধ তৈরি করছে মার্কিন গবেষকরা

যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানভিত্তিক সাময়িকী ‘সায়েন্টিফিক আমেরিকান’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে করোনার প্রতিষেধক হিসেবে তৈরিকৃত ওই ওষুধের বর্ণনা দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমেরিকার নর্থ ক্যারোলাইনা বিশ্ববিদ্যালয় ও ভ্যান্ডারবিল্ট ইউনিভার্সিটি মেডিকেল সেন্টারের একদল গবেষক করোনাপ্রতিরোধী ‘ইআইডিডি-২৮০১’ নামে এই নতুন ওষুধ নিয়ে গবেষণা করেছেন।

জাতীয়

শবে বরাতে ঘরে ইবাদতের নির্দেশ : অমান্য করলে ব্যবস্থা

শবে বরাতে ঘরে ইবাদতের নির্দেশ : অমান্য করলে ব্যবস্থা

আগামীকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হবে। যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে এ রাতে ইবাদত বন্দেগী করবে মুসলিম সম্প্রদায়।

স্বাস্থ্য

চোখের মাধ্যমে যেভাবে করোনা আক্রমণ করে

চোখের মাধ্যমে যেভাবে করোনা আক্রমণ করে

করোনাভাইরাসের কারণে এখন সারা বিশ্বে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এই ভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগের গতি প্রকৃতি নিয়েও চলছে নানা গবেষণা। সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশির ড্রপলেট বায়ুতে ঘুরে বেড়ায়। এই ড্রপলেট রোগীর কাছাকাছি থাকা সুস্থ মানুষের নাক, মুখ ও চোখের মাধ্যমে তার শরীরে প্রবেশ করে।