• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭

লেনিন: বলশেভিক বিপ্লবের প্রবাদ পুরুষ

লেনিন: বলশেভিক বিপ্লবের প্রবাদ পুরুষ

ফিচার ডেস্ক১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০৮:৩৭পিএম, ঢাকা-বাংলাদেশ।

ভ্লাদিমির ইলিচ উলিয়ানভ লেনিন। একজন রাশিয়ান বিপ্লবী। বলশেভিক বিপ্লবের প্রবাদ পুরুষ। তিনিই হলেন সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রথম রাষ্ট্রনায়ক। তার নেতৃত্বেই ১৯১৭ সালে রাশিয়ায় কমিউনিস্ট সরকারের গোড়াপত্তন হয়।

তার প্রতিষ্ঠিত কমিউনিজম লেলিনবাদ হিসেবে পরিচিত। লেনিন ১৮৭০ সালে রাশিয়ান সাম্রাজ্যের সিমবিরস্ক শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি অত্যন্ত মেধাবী ছিলেন এবং শৈশবেই ল্যাটিন ও গ্রিক ভাষা শিখেছিলেন।

রাশিয়ার সম্রাটের (জার) বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় ১৮৮৭ সালে তাকে কেজান স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে বের করে দেয়া হয়। এরপর তিনি বাসায় নিজ উদ্যোগে পড়াশোনা করতে লাগলেন। ১৮৯১ সালে তিনি আইনজীবী হিসেবে কাজ করার লাইসেন্স পেয়ে যান।

একই বছরে রুশ সম্রাট আলেকজান্ডার তৃতীয়কে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে লেনিনের ভাই আলেক্সান্ডারকে ফাঁসি দেয়া হয় এবং তার বোন আনাকে তাতারস্তানে নির্বাসনে পাঠানো হয়। পরে ভাই হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার অঙ্গীকার করেন লেনিন।

সেন্ট পিটার্সবার্গে আইন অধ্যয়ন করার সময় তিনি জার্মান দার্শনিক কার্ল মার্কস ও ফ্রেডরিক এঞ্জেলসের লেখা দ্বারা প্রভাবিত হন। পুঁজিবাদকে উৎখাত করে একটি সাম্যবাদী কমিউনিস্ট সমাজ প্রতিষ্ঠার সংকল্প করেন লেনিন।

তিনি বিদ্যমান পুঁজিবাদী সমাজকে অন্তর্নিহিতভাবে অবিচার হিসেবে বর্ণনা করেছেন। মার্কসবাদের সমর্থন ও পুঁজিবাদের সমালোচনা করায় তাকে গ্রেপ্তার করে সাইবেরিয়ার কারাগারে পাঠানো হয়।

১৮৯৯ সালে কারাগারে থাকাকালে তিনি “দ্য ডেভেলাপমেন্ট অফ ক্যাপিটালিজম ইন রাশিয়া” নামে বই লিখেন। ১৯০০ সালে লেনিন কারাগার থেকে মুক্তি পান। এরপর তিনি ইউরোপ ভ্রমণে বের হন এবং মার্ক্সবাদের সমর্থনে “ইস্করা” নামে একটি পত্রিকা প্রকাশ করেন। তিনি রাশিয়ান সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক লেবার পার্টির গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে উঠেন।

এ সময় পার্টির আরেকজন নেতা জুলিয়াস মার্টোভের সাথে লেনিন বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এতে দলটি দু’ভাগে বিভক্ত হয়ে যায়। একটি শাখা লেনিনের নেতৃত্বে যার নাম ‘বলশেভিক’। এই দলটি চূড়ান্ত ক্ষমতা সরকারের হাতে দিতে চেয়েছিল।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ শুরু হলে লেনিনের নেতৃত্বে মার্কসবাদী বলশেভিক নেতারা বিশ্বযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিলেন।

১৯১৭ সালে লেনিনের বিরুদ্ধে গুজব ছড়ায় যে তিনি জার্মানির কাছ থেকে অর্থ নিয়েছেন। এতে চরম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন লেনিন। তিনি গ্রেপ্তার ও হত্যার ভয়ে ফিনল্যান্ডে পালিয়ে যান। সেখানে থেকেই তিনি তার কমিউনিজম নিয়ে আন্দোলন অব্যাহত রাখেন।

এসময় ‘ফেব্রুয়ারি বিপ্লবে’র ফলে রাশিয়ার জার নিকোলাস দ্বিতীয়র পতন হয়। এতে জার্মানির সহযোগিতায় লেনিন রাশিয়ায় ফিরে আসেন। তিনি সরকারবিরোধীদের ঐক্যবদ্ধ করেন এবং কমিউনিস্ট সমাজ প্রতিষ্ঠার আন্দোলন চালিয়ে যান।

১৯১৭ সালের অক্টোবরে লেনিনের নেতৃত্বে বলশেভিক বিপ্লবীরা কেরোনস্কি সরকারকে উৎখাত করে পেট্রোগ্রাদসহ (সেন্ট পিটার্সবার্গ) রাশিয়ার গুরুত্বপূর্ণ শহরগুলো দখল করে নেয়। ইতিহাসে এটি ‘অক্টোবর বিপ্লব’ নামে পরিচিত।

সফল বিপ্লবের পর লেনিন রাশিয়াকে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করেন এবং তিনি এর প্রধান নেতা নিযুক্ত হন। লেনিন ১৯১৮ সালের জানুয়ারিতে জার্মানির সাথে চুক্তি করে যুদ্ধের ইতি টানেন। যদিও এই যুদ্ধে অনেক ভূখণ্ড হারিয়ে রাশিয়াকে চরম মূল্য দিতে হয়েছে।

জার্মানির সাথে রাশিয়ার এই চুক্তির ফলে মিত্রশক্তি বৃটেন ও ফ্রান্স ক্ষুব্ধ হয়ে যায়। তাদের আশংকা রাশিয়ায় কমিউনিস্টদের উত্থান সমগ্র ইউরোপে ছড়িয়ে পড়বে। তাই তারা রাশিয়ার লেনিনবিরোধীদের সমর্থন দিতে থাকে। ফলে রাশিয়ায় গৃহ যুদ্ধ দেখা দেয়।

এ সময় বিরোধীদের দমন করতে বিশেষ খাদ্যনীতি চালু করেন তিনি। এর ফলে রাশিয়ার অসংখ্য সাধারণ নাগরিক দুর্ভিক্ষ ও রোগে মারা যায়। এক পর্যায়ে গৃহযুদ্ধের অবসান ঘটে এবং লেনিনের বলশেভিক দল বিজয়ী হয়।

যুদ্ধ শেষ হলে লেনিন নতুন অর্থনৈতিক সংস্কার কর্মসূচি চালু করেন। তিনি সীমিত আকারে ব্যক্তিখাতে উদ্যোক্তাদের সুযোগ দেন।

১৯২৪ সালে ২১ জানুয়ারি স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে এই বলশিভিক নেতা মারা যান। মস্কোর রেড স্কয়ারে তার নামে ‘লেনিন মিউজিয়াম’ প্রতিষ্ঠা করা হয় এবং এখানেই লেনিনের মরদেহ সংরক্ষণ করা হয়েছে।

তার স্মৃতির সম্মানে ১৯২৪ সালে পেট্রোগ্রাদের (সাবেক সেন্ট পিটার্সবার্গ) নাম পরিবর্তন করে লেনিনগ্রাদ রাখা হয়। তার মৃত্যুর পর রাশিয়ার ক্ষমতায় আসেন আরেক বিপ্লবী নেতা স্ট্যালিন।

অটো নয়, মূল্যায়নের মাধ্যমে অষ্টম থেকে নবম শ্রেণিতে প্রমোশন

অটো নয়, মূল্যায়নের মাধ্যমে অষ্টম থেকে নবম শ্রেণিতে প্রমোশন

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এবছরের জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা বাতিল হলেও শিক্ষার্থীদের নবম শ্রেণিতে

এবার কক্সবাজারের ৩৪ পুলিশ পরিদর্শককে একযোগে বদলি

এবার কক্সবাজারের ৩৪ পুলিশ পরিদর্শককে একযোগে বদলি

পুলিশের কক্সবাজার জেলার ৩৪ জন ইন্সপেক্টরকে (পরিদর্শক) দেশের বিভিন্ন জেলা

ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ

ক্রেডিট কার্ডে সর্বোচ্চ সুদ ২০ শতাংশ

ক্রেডিট কার্ডের ওপর সুদের হার ২০ শতাংশের বেশি নির্ধারণ করা

জাতীয়

বেসরকারি হাসপাতালগুলো চিকিৎসার নামে ‘ডাকাতের’ মতো টাকা নিচ্ছে: মেয়র আতিক

বেসরকারি হাসপাতালগুলো চিকিৎসার নামে ‘ডাকাতের’ মতো টাকা নিচ্ছে: মেয়র আতিক

চিকিৎসা ও পরীক্ষার নামে বেসরকারি হাসপাতালগুলো মানুষের কাছ থেকে ‘ডাকাতের মত’ টাকা নিচ্ছে মন্তব্য করে ক্ষোভ ঝেরেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। হাসপাতালগুলো বেশি টাকা নিলেও নিজেদের চিকিৎসাবর্জ্য ঠিকমত ব্যবস্থাপনা করছে না জানিয়ে শিগগিরই তাদের বিরুদ্ধে সমন্বিত অভিযান শুরুর তাগিদ দেন তিনি।

স্বাস্থ্য

ঘরোয়া উপায়ে কফ উপশম করবেন কীভাবে?

ঘরোয়া উপায়ে কফ উপশম করবেন কীভাবে?

আপনি চাইলেই সে অর্থে সর্দি জ্বর বা ফ্লু চিকিৎসা করতে পারবেন না, তবে এসব রোগের উপসর্গ হিসেবে দেখা দেয়া কফ, কাশি এবং গলা ব্যথা উপশম করতে পারবেন।

জাতীয়

করোনায় আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪০

করোনায় আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৫৪০

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৫ হাজার ৭২ জনে। একই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ হাজার ৫৪০ জন। ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা হল ৩ লাখ ৫৫ হাজার ৩৮৪ জন।

জাতীয়

মসজিদে বিস্ফোরণ: ৩৫ পরিবারে ৫ লাখ টাকা করে অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

মসজিদে বিস্ফোরণ: ৩৫ পরিবারে ৫ লাখ টাকা করে অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার তল্লায় মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় নিহত এবং আহত ৩৫ পরিবারের প্রতিটি পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা করে মোট ১ কোটি ৭৫ লাখ টাকার আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাজনীতি

চট্টগ্রামে নাশকতার আট মামলায় বিএনপির ১৬ নেতাকর্মী কারাগারে

চট্টগ্রামে নাশকতার আট মামলায় বিএনপির ১৬ নেতাকর্মী কারাগারে

২০১৮ সালের ৩০ জানুয়ারির জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ থানায় নাশকতার অভিযোগে করা নাশকতার আট মামলায় বিএনপি ও এর সহযোগী সংগঠনের ১৬ নেতাকর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। এছাড়া বয়স ও শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় ১০ জনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

স্বাস্থ্য

কফি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিষয়ে যা জানা আবশ্যক

কফি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বিষয়ে যা জানা আবশ্যক

কফি লিভারের জন্যও অনেক উপকারী। কারণ কফি পানকারীদের লিভার সিরোসিসের ঝুঁকি অনেক কম। এটি লিভার, হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং কোলোরেক্টাল ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দিতে পারে। নিয়মিত কফি পান আপনার অ্যালঝেইমার এবং পারকিন্সন রোগের ঝুঁকি ৩২-৬৫% কমিয়ে দেয়।