• ঢাকা, বাংলাদেশ
  • বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

ইতিহাস

ভ্যালেন্টাইন নিয়ে প্রচলিত যত কিংবদন্তী

ভ্যালেন্টাইন নিয়ে প্রচলিত যত কিংবদন্তী

ফেব্রুয়ারির ১৪ তারিখ ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে’ বা ‘বিশ্ব ভালবাসা দিবস’। বিশ্বজুড়ে প্রেমিক-প্রেমিকা যুগলেরা মহাসমারোহে দিনটি উদযাপন করে থাকেন। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মেক্সিকো, আর্জেন্টিনা, দ. কোরিয়া, ফ্রান্স, ফিলিপিন প্রভৃতি দেশে এই দিনটি অত্যন্ত জমকালো ভাবে উদযাপন করা হয়। তবে আমাদের এই উপমহাদেশেও দিবসটির জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু কে এই ভ্যালেন্টাইন, কেন তাকে নিয়ে বিশ্বজুড়ে এত মাতামাতি? ভ্যালেন্টাইন এবং ভালবাসার প্রতি তার অবদানের বিষয়ে বেশ

মধ্য এশিয়ার প্রাচীন সভ্যতা ধ্বংসের দায় চেঙ্গিস খানের নয়

মধ্য এশিয়ার প্রাচীন সভ্যতা ধ্বংসের দায় চেঙ্গিস খানের নয়

১২২১ সালে মঙ্গোল শাসক চেঙ্গিস খান মধ্য এশিয়ার খারিজমিয়ান সম্রাজ্য দখল করে নেয়। বলা হয়ে থাকে এ সময় মঙ্গোলদের বর্বরতার কারণে ধ্বংস হয়ে যায় মধ্য এশিয়ার নদী বিধৌত অঞ্চলে গড়ে ওঠা তৎকালীন সময়ের অন্যতম সমৃদ্ধ সভ্যতার। বন্যার পানি চাষের কাজে ব্যবহারের কৌশল রপ্ত করে কৃষি বিপ্লবের মাধ্যমে এই অঞ্চলের লোকের নিজেদের সমৃদ্ধ করেছিল, কিন্তু হঠাৎ করেই ত্রয়োদশ শতাব্দীর শুরুতে সভ্যতাটি বিলীন হয়ে যায়।

হিরু অনোদা: হার না মানা এক জাপানি সৈনিকের গল্প

হিরু অনোদা: হার না মানা এক জাপানি সৈনিকের গল্প

হিরু অনোদার নেতৃত্বে ৪ জনের একটি দলকে দ্বীপে থেকে গেরিলাযুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব দেয়া হয়। তার কমান্ডিং অফিসার মেজর ইয়োসিমি তানিগুচি তাকে কখনোই ‘আত্মসমর্পণ এবং আত্মহত্যা না করে’ যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন। যাইহোক না কেন জাপানি সেনারা তাদেরকে উদ্ধারের জন্য দ্বীপটিতে ফিরে আসবে বলে তিনি প্রতিশ্রুতি দেন ।

১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারির দ্বিতীয় তরঙ্গ ছিল সব থেকে ভয়ঙ্কর

১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারির দ্বিতীয় তরঙ্গ ছিল সব থেকে ভয়ঙ্কর

১৯১৮ সালের ফ্লু মহামারীর দ্বিতীয় তরঙ্গ বা সেকেন্ড ওয়েভের ফলে লাখ লাখ মানুষ মারা গিয়েছিল। কারণ ভাইরাস এবং শ্বাসকষ্টজনিত রোগ কিভাবে ছড়ায় তা আমরা জানলেও সে সময়ের লোকেরা সেটি জানতেন না।

নিজের স্তন কেটে প্রতিবাদ করেছিলেন যে নারী

নিজের স্তন কেটে প্রতিবাদ করেছিলেন যে নারী

কোন দলিত মাহিলা যদি তার স্তন আবৃত রাখতে চাইতেন তাহলে তাকে উচ্চমাত্রায় কর দিতে বাধ্য করা হতো। এমনকি কর সংগ্রাহকেরা স্তনের আকার বিবেচনা পূর্বক করের পরিমাণ নির্ধারণ করতেন। এটি ইতিহাসে স্তনকর বা ব্রেস্ট ট্যাক্স নামে পরিচিত।

দায়িত্ব পালনের সময় আমেরিকার যেসব রাষ্ট্রপতি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন

দায়িত্ব পালনের সময় আমেরিকার যেসব রাষ্ট্রপতি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন

আমেরিকার সবচেয়ে বেশি সময়ের রাষ্ট্রপতি ফ্রাঙ্কলিন ডেলানো রুজভেল্ট পোলিওতে আক্রান্ত ছিলেন। রোগটি তীব্র আকার ধারণ করলেও তিনি তা আমেরিকান জনগণের কাছ থেকে লুকিয়ে রেখেছিলেন, তার আশঙ্কা ছিল এটি প্রকাশ হয়ে গেলে জনগণ তাকে দুর্বল মনে করতে পারে।